Uric Acid Diet: ইউরিক অ্যাসিডে ভুগছেন? এই জিনিস কিন্তুভুলেও নয়…

By | April 6, 2022


যে সব খাবার বাদ রাখবেন তালিকা থেকে

ইউরিক অ্যাসিড হল প্রাকৃতিক বর্জ্য, যা শরীর থেকে নির্গত হয় সেই সঙ্গে এই বর্জ কিন্তু আমাদের শরীর থেকে পিউরিন সমৃদ্ধ খাবার হজমের পর নির্গত হয়। পিউরিন হল রাসায়নিক যৌগ যা কার্বন ও নাইট্রোজেন দ্বারা গঠিত। পিউরিন সমৃদ্ধ খাবার বেশি খেলে কিন্তু তখন হজমে সমস্যা হয়। কারণ আমাদের শরীর তা ঠিকমত হজম করতে পারে না। ফলে তখন শরীরে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়। রক্তে ইউরিক অ্যাসিডের পরিমাণ বেড়ে গেলে সেখান থেকে গাউটের সমস্যা হতে পারে। তবে এই সব সমস্যা এড়াতে চাইলে খাবার অভ্যাসগুলি পরিবর্তন করা কিন্তু ভীষণ ভাবে জরুরি। আর তাই যাঁদের ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যা রয়েছে তাঁদের কিন্তু প্রথমে অবশ্যই জোর দিতে হবে ডায়েটে।

আর ইউরিক অ্যাসিড থাকলে কিন্তু ডায়েট থেকে পিউরিন সমৃদ্ধ খাবার একেবারেই বাদ দিতে হবে। সেই সঙ্গে অত্যন্ত সতর্কও থাকতে হবে। অতিরিক্ত চর্বি খাওয়া যাবে না। কারণ এতে শরীরে ইউরিক অ্যাসিড নিঃসরণ ক্ষমতা হ্রাস পায়। আর অ্যালকোহল যুক্ত  কোনও পানীয় থেকে দূরে থাকুন। অ্যালকোহল কিন্তু একেবারেই ছোঁবেন না। তাই প্রচুর পরিমাণে জল খান। জল বেশি খেলে প্রস্রাব পরিষ্কার হবে। সেই সঙ্গে শরীরের অতিরিক্ত টক্সিনও বেরিয়ে যাবে। এছাড়াও ইউরিক অ্যাসিড জমলে তার ঘনত্ব পাতলা করতেও কিন্তু ভূমিকা আছে জলের।

যে সব খাবার একেবারেই এড়িয়ে চলবেন- 

যে কোনও রকম সামুদ্রিক মাছ, রেড মিট এসব কিন্তু এড়িয়ে চলতে হবে। এতে শুধু শরীরের ওজন বাড়ে। আর অন্য কোনও কাজে আসে না। রেড মিট বেশি খেলে কিন্তু সেখান থেকে হার্টের সমস্যা আসতে পারে। সেই সঙ্গে কিমাও না খাওয়া ভাল।

ডালের মধ্যে থাকে প্রচুর পরিমাণ প্রোটিন। তা শরীরের জন্য উপকারী। কিন্তু যাদের ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যা রয়েছে তাঁরা কিন্তু একেবারেই খাবেন না ডাল। এতে শরীরে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়।

যদি আপনি হাইপারইউরিসেমিয়ায় ভোগেন তাহলে চিনিযুক্ত পানীয় এবং চিনি আজই বাড়ির বাইরে ফেলে দিন।

রোজ নিয়ম করে অ্যাপেল সিডার ভিনিগার খান। আপেলের মধ্যে রয়েছে ম্যালিক অ্যাসিড। যা ইউরিক অ্যাসিড ভেঙে দিয়েই ক্ষান্ত থাকে না শরীর থেকে বেরও করে দেয়। এছাড়াও নিয়মিত ভাবে খেতে পারলে শরীরে অ্যান্থোসায়ানিন নামের যে যৌগ তারি হয় তা আমাদের শরীরের জয়েন্টের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে।

যা কিছু খাবেন-

*ফাইবার সমৃদ্ধ কাবার বেশি করে খাওয়ার চেষ্টা করুন। এতে কিন্তু অনেকক্ষণ পর্যন্ত পেট ভর্তি থাকে। সেই সঙ্গে ফাইবার কিন্তু ইউরিক অ্যাসিড শোষণেও সাহায্য করে।

*লেবুর মধ্যে থাকে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি। যা শরীরের অতিরিক্ত ইউরিক অ্যাসিডকে দ্রবীভূত করতে সাহায্য করে।

*চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ফল খেতেও কিন্তু ভুলবেন না



Source link