Turbulence in flight: কলকাতায় অবতরণের আগে ‘টার্বুল্যান্সে পড়ে তীব্র ঝাঁকুনি’ বিমানে, ঝড়ের দাপটে ব্যাহত উড়ান পরিষেবা

By | May 1, 2022


কলকাতাগামী বিমানে টার্বুল্যান্স

Storm in Kolkata : বিমানের ভিতরের সেই আতঙ্কের মূহূর্তের অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন চিকিৎসক সুনন্দন বসু। তিনি সেই সময় ওই বিমানের মধ্যেই ছিলেন। যাত্রীদের কথায়, পাইলটের অভিজ্ঞতার জোরেই রক্ষা পেয়েছেন তাঁরা।

কলকাতা : স্বস্তির বৃষ্টি শহরে। সেই সঙ্গে উপরি পাওনা কালবৈশাখী। শহর ও শহরতলির মানুষ যখন বৃষ্টির ঠান্ডা আমেজ গায়ে মাখছে, সেই সময় মাঝ আকাশে কিন্তু বেশ ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি। আগরতলা থেকে কলকাতাগামী এক বিমান জোর টার্বুল্যান্সের মধ্যে পড়ে। এমনই দাবি করছেন ওই বিমানের এক যাত্রী চিকিৎসক সুনন্দন বসু। তাঁর কথায়, কলকাতা বিমানবন্দরে অবতরণের কিছু আগে এয়ার টার্বুল্যান্সের মধ্যে পড়ে বিমান। তীব্র ঝাঁকুনির অনুভূতি হয় বিমানে। প্রায় এক ঘণ্টা দেরিতে অবতরণ করল ইন্ডিগোর ওই বিমানটি। বিমানের ভিতরের সেই আতঙ্কের মূহূর্তের অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন চিকিৎসক সুনন্দন বসু। তিনি সেই সময় ওই বিমানের মধ্যেই ছিলেন। যাত্রীদের কথায়, পাইলটের অভিজ্ঞতার জোরেই রক্ষা পেয়েছেন তাঁরা।

চিকিৎসক সুনন্দন বসু জানিয়েছেন, “আমরা আগরতলা থেকে ফিরছিলাম। প্রচণ্ড ঝড় হচ্ছিল। তখন কলকাতা থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে। তখন আমরা শুধু উঠছি আর নামছি। সবাই আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন বিমানে। এটাই যেন পৃথিবীর শেষ। কিন্তু পাইলটদের অভিজ্ঞতার জোরে আমরা বেঁচে গিয়েছি।”

এদিকে কালবৈশাখী ও বৃষ্টির দাপটে কলকাতা বিমানবন্দর আসা তিনটি বিমানের অভিমুখ ঘুরিয়ে অন্যান্য বিমানবন্দরে অবতরণ করানো হয়েছে শনিবার। বিমানবন্দর সূত্র মারফত খবর, গোরখপুর থেকে কলকাতাগামী ইন্ডিগোর একটি বিমানকে ঘুরিয়ে রাঁচি বিমানবন্দরে অবতরণ করানো হয়েছে। রাঁচি থেকে কলকাতাগামী ইন্ডিগোর একটি বিমানকে ঘুরিয়ে ভুবেনেশ্বর বিমানবন্দরে অবতরণ করানো হয়েছে এবং দিল্লি থেকে কলকাতাগামী একটি ইন্ডিগোর বিমানকে ঘুরিয়ে গুয়াহাটি বিমানবন্দরে অবতরণ করানো হয়েছে।

শুক্রবারের মতো শনিবারও সন্ধ্যা নামতেই বৃষ্টি নামে শহরে। বৃষ্টির পরিমাণ ছিল গতকালের তুলনায় কিছুটা বেশি। প্রায় দুই মাস অপেক্ষার পর মরশুমের প্রথম কালবৈশাখীর সাক্ষী থাকে কলকাতা। ঘড়ির কাঁটায় তখন সন্ধে ৭ টা ২৩ মিনিট। ঝড় ওঠে আলিপুরে। ঝড়ের গতিবেগ ৬৪ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা। আলিপুরে বৃষ্টির পরিমাণ ছিল ১১.৩ মিলিমিটার। দমদমে বৃষ্টির পরিমাণ ছিল ২৭.৬ মিলিমিটার। শহরজুড়ে যখন স্বস্তির বৃষ্টি, তখন মাঝ আকাশে এক ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার সাক্ষী হলেন চিকিৎসক সুনন্দন বসু এবং তাঁর সঙ্গে  থাকা বিমানের সহযাত্রীরা।

আরও পড়ুন : Rain in Kolkata: অবশেষে তুমুল বৃষ্টি শুরু কলকাতায়, ৬৪ কিমি বেগে বইছে ঝড়



Source link