Narendra Modi Maan Ki Baat: ‘আঞ্চলিক ভাষা নিয়ে অনেক কাজ হচ্ছে’, মোদীর মন কি বাতে পুরুলিয়ার অধ্যাপকের নাম

By | May 29, 2022


নরেন্দ্র মোদীর মন কি বাত

Narendra Modi: সাঁওতালিদের জন্য ভারতের সংবিধানকে অলচিকি ভাষায় অনুবাদ করেছেন অধ্যাপক শ্রীপতি টুডু। সেই কথা রবিবারের মন কি বাত অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

নয়া দিল্লি : আঞ্চলিক ভাষার উপর যে কেন্দ্রীয় সরকারের বিশেষ নজর রয়েছে, সেই কথা আগেও একাধিকবার বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রবিবাসরীয় সকালে তাঁর ৮৯ তম মন কি বাত অনুষ্ঠানে আবারও সেই আঞ্চলিক ভাষার উপরেই জোর দেওয়ার কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী। মন কি বাত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ভারতে বিভিন্ন ভাষা, উপভাষা রয়েছে। আমাদের দেশে এমন অনেক মানুষ রয়েছেন, যাঁরা এই ভাষা বৈচিত্রকে আরও মজবুত করার জন্য কাজ করে চলেছেন।” সেখানেই উদাহরণ হিসেবে পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ার এক অধ্যাপকের নামও বললেন। সাঁওতালিদের জন্য ভারতের সংবিধানকে অলচিকি ভাষায় অনুবাদ করেছেন অধ্যাপক শ্রীপতি টুডু। সেই কথা রবিবারের মন কি বাত অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

এর পাশাপাশি দেশের স্টার্ট আপ সংস্থাগুলির সাফল্যের কথাও উঠে আসে নরেন্দ্র মোদীর মন কি বাতে। ভারতীয় স্টার্ট আপ সংস্থাগুলির প্রশংসা করে মোদী বলেন, “স্টার্ট আপগুলি হল নতুন ভারতের মূল মন্ত্র। আমি বিশ্বাস করি, আগামী দিনে এই স্টার্ট আপগুলি ভারতে নতুন শিখরে নিয়ে আসবে। এই স্টার্ট আপগুলিকে সঠিক দিশা দেখানো হলেই এগুলি শিখরে পৌঁছে যেতে পারবে। ভারতে এমন অনেকে আছেন, যাঁরা এই স্টার্ট আপগুলিকে সঠিক দিশা দেখাতে পারেন।”

অতীতেও একাধিকবার স্বচ্ছতার উপর জোর দিতে দেখা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে। স্বচ্ছ ভারত অভিযান চালু হয়েছে। সেই স্বচ্ছতার কথা আবারও স্মরণ করিয়ে দিলেন নমো। বললেন, “উত্তরাখণ্ডে চারধাম যাত্রা চলছে। হাজার হাজার মানুষ সেখানে যাচ্ছেন। আমি দেখেছি, অনেক তীর্থযাত্রীই কেদারনাথে যত্রতত্র আবর্জনা ফেলছেন। আবার এমন অনেক তীর্থযাত্রীও রয়েছেন, যাঁরা তীর্থযাত্রার সময় নিজেদের আশপাশের এলাকার আবর্জনা পরিষ্কার করছেন।” সেই কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী স্মরণ করিয়ে দেন, যখন কোনও জায়গায় তীর্থযাত্রা করা হবে, তখন সেখানকার আশপাশের এলাকার পরিচ্ছন্নতা যাতে বজায় থাকে, সেই দিকে নজর রাখতে হবে।

এর পাশাপাশি নারীদের উন্নয়নের ক্ষেত্রে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর ভূমিকার কথাও তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। বললেন, ” মহিলাদের স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলির মাধ্যমে দেশের অনেক দরিদ্র পরিবারের জীবন বদলে দিয়েছে।”



Source link