Jalpaiguri Case: ‘আমি জানলায় দাঁড়াতেই গামছাটা খুলে ফেলল…’, পড়শি যুবকের কাণ্ডে নাস্তানাবুদ তরুণী

By | April 6, 2022


থানায় অভিযোগ দায়ের তরুণীর। নিজস্ব চিত্র।

জলপাইগুড়ি: পাশাপাশি বাড়ি। দিনের পর দিন পড়শি তরুণীকে নানাভাবে হেনস্থা করার অভিযোগ উঠল প্রতিবেশি যুবকের বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে ওই তরুণী ও তাঁর বাবার গায়ে হাত তোলা হয় বলেও অভিযোগ। এরপরই জলপাইগুড়ির কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দায়ের করে ওই পরিবার। দিনের পর দিন অকথ্য ভাষায় কথা, নোংরা অঙ্গভঙ্গি, বাড়িতে নোংরা ফেলার মতো অভিযোগ রয়েছে যুবকের বিরুদ্ধে। রাতেই গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্তকে। ওই তরুণীর বাবা এলাকার মাস্টারমশাই। তাঁর যথেষ্ট পরিচিতি রয়েছে। খবর ছড়াতেই হইচই পড়ে যায় জলপাইগুড়ি শহরে। অভিযুক্ত যুবকের দিদি পলাতক বলে জানিয়েছে পুলিশ। কোতোয়ালি থানার আইসি অর্ঘ্য সরকার বলেন, “অভিযোগ পেয়ে রাতেই আমরা মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করি।” মঙ্গলবার ধৃতকে আদালতে তোলা হলে জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে যায়। আপাতত ১৪ দিনের জেল হেফাজত হয়েছে তাঁর।

জলপাইগুড়ি শহরের বাসিন্দা ওই শিক্ষকের তিন মেয়ে। অভিযোগ, তাঁর দুই মেয়েকে বিভিন্ন সময় নানাভাবে বিরক্ত করেন ওই যুবক। গত কয়েকমাস ধরে লাগাতার কুপ্রস্তাব, অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি, খারাপ কথাও বলেন পাশের বাড়ির ছেলেটি। আগেও বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় পঞ্চায়েত ও পুলিশকে জানান ওই শিক্ষকের পরিবার। পুলিশ তাঁকে সতর্কও করে। মাঝে কিছুদিন এসব বন্ধ ছিল। তবে ইদানিং ফের তা শুরু হয়েছে।

অভিযোগ, সোমবার রাতে মদ্যপ অবস্থায় ওই যুবক তরুণী ও তাঁর বাবার উপর চড়াও হন। ওই তরুণীর কথায়, “ওই ছেলে আর ওর দিদি অদ্ভূত ব্যবহার করে। বাড়ির ভিতর ময়লা ফেলে দেয়। সুযোগ পেলেই গাছ নষ্ট করে। আগে সতর্কও করা হয়েছে। এরপরও একই জিনিস চলছে। ওদের উঠোন আর আমাদের ঘরের জানলা একদিকে। আমি কখনও হয়ত জানলার ধারে এসে দাঁড়ালাম, ও গামছা পরে রয়েছে। হঠাৎই গামছা খুলে ফেলে। এগুলো তো হেনস্থা করা। আমি, দিদি, বোন বাড়িতে থাকি। একদিন আমি স্নানে গিয়েছি। বোন চিৎকার করে আমাকে বেরিয়ে আসতে বলল। আমাকে বলছে, ‘দিদি ও তোকে ভেন্টিলেটর দিয়ে দেখছে।’ এগুলো কী সভ্যতা?”

ওই তরুণীর কথায়, সোমবার তাঁর বোন কুকুর নিয়ে রাস্তায় বেরিয়েছিল। নোংরা ভাষায় কথা বলে ওই যুবক। এরপরই তাঁরা গিয়ে প্রতিবাদ করেন। হইচই শুনে ছুটে যান ওই যুবকের দিদি। তরুণীর দাবি, “বাবাকে এমন মেরেছে চশমাটা ভেঙে গিয়েছে। আমি প্রতিবাদ করায় ওর দিদি আমাকেও মারে। গালে মারে, চশমা ফেলে দেয়। ওরা সবসময় হুমকি দেয় প্রাণে মেরে দেবে। যখনই ওই ছেলে মদ খায় আমাদের বাড়িতে এসে চড়াও হয়।” ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: Babul Suprio on CBI: ‘শুনছি অনেক কিছুই…’, সিবিআই-ইডি নিয়ে ভয় পাচ্ছেন বাবুল? না কি ভোটের কৌশল?

আরও পড়ুন: SSC Recruitment Case: এড়ানো গেল না সিবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদ, নিজাম প্যালেসে পৌঁছলেন এসএসসির প্রাক্তন উপদেষ্টা



Source link