Firhad Hakim on Red Beacon Light: অনুব্রতর কোনও অধিকার নেই গাড়িতে লালবাতি লাগানোর, এবার থেকে কড়া ‘দাওয়াই’, বার্তা ফিরহাদের

By | April 29, 2022


লালবাতি গাড়ি নিয়ে মামলা হাইকোর্টে। নিজস্ব চিত্র।

Firhad Hakim: লালবাতির তালিকায় যাঁদের অনুমোদন রয়েছে, তাঁদের মধ্যে অনুব্রত মণ্ডল নেই, বললেন ফিরহাদ হাকিম।

কলকাতা: কলকাতা হাইকোর্টে (Calcutta High Court) শুক্রবারই জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে। কোন অধিকারে অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal) লালবাতির গাড়ি হাঁকিয়ে বীরভূম থেকে কলকাতা ঘুরে বেড়ান তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন বিজেপি মোর্চার সহ-সভাপতি তথা আইনজীবী তরুণজ্যোতি তিওয়ারি। এবার মুখ খুললেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। সাফ জানিয়ে দিলেন, অনুব্রতর গাড়িতে লালবাতি ব্যবহার ঠিক হয়নি। তাঁর কোনও অধিকারই নেই লালবাতি ব্যবহারের। একইসঙ্গে পরিবহণ মন্ত্রীর হুঁশিয়ারি, আইন ভেঙে কেউ গাড়িতে লালবাতি কিংবা নীলবাতি ব্যবহার করলে এবার সেই গাড়ি বাজেয়াপ্ত করবে সরকার। খুব শীঘ্র এ নিয়ে বিজ্ঞপ্তিও জারি করা হবে। ফিরহাদের স্পষ্ট বার্তা, আইনের হাত থেকে রেহাই পাবেন না কেউই। এদিন পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, “অনুব্রত মণ্ডল লালবাতি পাওয়ার ক্ষেত্রে অনুমোদন প্রাপ্ত নন। লালবাতি অনুব্রত নিয়েছে এটা উচিত হয়নি। আমি খুলে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছি। লালবাতির তালিকায় যাঁদের অনুমোদন রয়েছে, তাঁদের মধ্যে অনুব্রত মণ্ডল নেই।” একইসঙ্গে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “এবার থেকে লালবাতি এবং নীলবাতি পাওয়ার অধিকারী নন এমন কেউ যদি গাড়িতে এই বাতি ব্যবহার করেন তা হলে শুধুমাত্র আলো খুলে নেওয়া হবে ভাবলে ভুল হবে। সেই গাড়িটিও কেড়ে নেওয়া হবে।” ফিরহাদ হাকিম বলেন এ নিয়ে বিজ্ঞপ্তিও জারি করতে চলছে সংশ্লিষ্ট দফতর।

মূলত দু’রকমের লালবাতির গাড়ি হয়। একটি ফ্ল্যাশ যুক্ত লালবাতির গাড়ি, অন্যটি ফ্ল্যাশ বিহীন লালবাতির গাড়ি। ফ্ল্যাশ যুক্ত লালবাতির গাড়িতে চড়তে পারেন রাজ্যপাল, মুখ্যমন্ত্রী, হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি, বিধানসভার অধ্যক্ষ, রাজ্য সরকারের ক্যাবিনেট মন্ত্রী, বিধানসভার বিরোধী দলনেতা, হাইকোর্টের বিচারপতি। অন্যদিকে ফ্ল্যাশবিহীন লালবাতির গাড়িতে চড়ার অধিকারী রাজ্য সরকারের প্রতিমন্ত্রীরা, বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার, কলকাতা পুরসভার মেয়র, রাজ্য সরকারের মুখ্যসচিব। নিয়মমতো অনুব্রত মণ্ডল কোনওভাবেই লালবাতি লাগানো গাড়িতে চড়ার অধিকারী নন। সূত্রের খবর, রাজ্য সরকার নতুন যে তালিকা প্রকাশ করতে চলেছে, সেখানে পুরনো তালিকা কম বেশি অপরিবর্তিতই থাকছে।

আদালতে এদিন যে জনস্বার্থ মামলা হয়েছে, সেখানে মামলাকারী তরুণজ্যোতি তিওয়ারি প্রশ্ন তোলেন, কেন ‘কেষ্ট বিষ্টুরা’ লালবাতির গাড়ি ব্যবহার করবেন? তরুণজ্যোতি তিওয়ারির কথায়, “পশ্চিমবঙ্গে যতগুলি বেআইনি নীলবাতি, লালবাতি লাগানো গাড়ি রয়েছে, সেগুলির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে হবে। পশ্চিমবঙ্গে সংস্কৃতি হয়ে গিয়েছে, তৃণমূলের কেষ্ট বিষ্টু যে যেখানে নেতা আছেন, সকলেই ভিআইপির মতো চলতে চান। গণতন্ত্রে এটা চলে না। এর বিরুদ্ধেই এই মামলা।”

আরও পড়ুন: Anubrata Mondal: লালবাতি গাড়িতে কেন চড়েন অনুব্রত? হাইকোর্টে মামলা ঠোকায় ফাঁপড়ে ‘কেষ্ট’



Source link