Bangla Awas Yojana: ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা করে এবার রাজ্যবাসীরা পেয়ে যাবেন এই বাংলা আবাস যোজনা প্রকল্পের মাধমে! কি ভাবে? জানুন – Sarkari Jagat

By | November 29, 2022


Bangla Awas Yojana, Bangla Awas Yojana Online Apply, Bangla Awas Yojana List, বাংলা আবাস যোজনা

রাজ্যের গরীব এবং মধ্যবিত্ত মানুষের কথা চিন্তা করেই নতুন এই প্রকল্প চালু করা হয়। এই প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যের সাধারণ মানুষ ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা পাবেন। এই প্রকল্পের নাম হলো বাংলা আবাস যোজনা (Bangla Awas Yojana)। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর রাজ্যের গরীব মানুষের মাথার ছাদ তৈরি করে দেওয়ার জন্য এই জনমুখী প্রকল্প চালু করেন। এটিও কেন্দ্রীয় সরকারের আবাস যোজনার মতোই একটি প্রকল্প (Bangla Awas Yojana)

অনেক দরিদ্র মানুষ তাদের স্থায়ী ঠিকানা গড়ে তুলতে পেরেছেন এই প্রকল্পের মাধ্যমে। তবুও রাজ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন যাদের মাথার উপর ছাদ নেই, অন্যের বাড়িতে ভাড়া থাকেন। এর একমাত্র কারণ হল তাদের আর্থিক অসঙ্গতি। যদি কারোর নিজের ঘর থেকে থাকে সেগুলোও দীর্ঘদিন ব্যবহারের ফলে ভেঙে চুরে গিয়ে বসবাসের অনুপযুক্ত হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু তাদের আর্থিক অসঙ্গতির ফলে তারা সারাই করতে পারছেন না। এতে ঝড় বৃষ্টিতে, ঠান্ডায় ছোটো ছোটো বাচ্চা এবং বয়স্ক মানুষদের নিয়ে তাদেরকে অত্যন্ত কষ্টের মধ্যে দিন কাটাতে হচ্ছে। রাজ্য সরকার এরকমই ৫০লক্ষ নাগরিককে এই প্রকল্পের (Bangla Awas Yojana) আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

পঞ্চায়েত ভোটের আগেই এই সুবিধা পেতে চলেছে তারা। গ্রাম থেকে শহরতলি প্রত্যেকেই এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন। এই প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যের সাধারণ মানুষ পাবেন ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। এই টাকা তাদের দেওয়া হবে ৩ কিস্তিতে। ঘরের ভিতর তৈরি করা থেকে শুরু করে মাথার ছাদ তৈরি পর্যন্ত তারা ৩ কিস্তিতে এই টাকা পাবেন। প্রথম কিস্তিতে ৪৫,০০০ টাকা, দ্বিতীয় কিস্তিতে ৪৫,০০০ টাকা এবং শেষ কিস্তিতে ৩০,০০০ টাকা তাদের দেওয়া হবে। কিন্তু এই টাকা হাতে হাতে দেওয়া হবে না। এই টাকা সরাসরি আবেদনকারীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে দেওয়া হবে। রাজ্য সরকারের মুল্য লক্ষ হলো রাজ্যের প্রত্যেকটি দারিদ্র্যসীমার নীচে থাকা পরিবারকে একটি স্থায়ী এবং সুরক্ষিত ঠিকানা দেওয়া। তাহলে চলুন এই প্রকল্প সম্বন্ধে বিষদে জেনে নেওয়া যাক।

বিষয় তালিকা

Bangla Awas Yojana: Eligibity | বাংলা আবাস যোজনা: যোগ্যতা

১) এই প্রকল্পের (Bangla Awas Yojana) জন্য আবেদনকারী প্রার্থীদের অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

২) আবেদনকারীর পরিবারের বার্ষিক আয় হতে হবে দারিদ্র্য সীমার নিচে।

৩) আপনি যদি আগেও এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করে থাকেন তাহলে আপনি দ্বিতীয়বার আবেদন করতে পারবেন না। অর্থাৎ এই প্রকল্পের জন্য একবারই আবেদন করা যাবে। তবে আবেদনে কোনো ভুল থাকলে তা সংশোধন করে দ্বিতীয় বার আবেদন করা যাবে।

৪) এই প্রকল্পের জন্য আবেদনকারী প্রার্থীদের নিজের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে।

৫) আবেদনকারী প্রার্থীদের নিজের আধার কার্ড এবং ভোটার কার্ড থাকা আবশ্যক।

🔥 আরও পড়ুন: 👇👇👇

🔥 Post Office Scheme: পোস্ট অফিসের এই স্কিমে টাকা রাখলেই ডাবল! কম মেয়াদে সুদও বেশি

🔥 PMAYG Scheme 2022

🔥Free Smartphone Scheme

Bangla Awas Yojana: Required Documents | বাংলা আবাস যোজনা: প্রয়োজনীয় নথিপত্র 

এই প্রকল্পে (Bangla Awas Yojana) আবেদনের জন্য যে নথিপত্রগুলির প্রয়োজন সেগুলি হল-

১) আপনার ভোটার কার্ডের জেরক্স

২) আপনার আধার কার্ড এর জেরক্স

৩) আপনার খাদ্যসাথী কার্ড/রেশন কার্ডের জেরক্স

৪) আপনার জব কার্ডের জেরক্স (যদি থাকে)

৫) আপনার এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি

৬) আপনি যেই পঞ্চায়েতের বাসিন্দা সেই পঞ্চায়েতের স্থায়ী বাসিন্দার প্রমাণপত্র

৭) আপনার নিজের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের প্রথম পাতার জেরক্স

How to Apply for Bangla Awas Yojana: | বাংলা আবাস যোজনা: আবেদন প্রক্রিয়া

১) আপনি যদি এই যোজনার জন্য আবেদন করতে চান তাহলে আপনাকে আপনি যেই পঞ্চায়েতের স্থায়ী বাসিন্দা সেখানে গিয়ে যোগাযোগ করতে হবে।

২) তারপর সেখান থেকে বাংলা আবাস যোজনার ফর্ম নিয়ে সেটিকে ফিলাপ করতে হবে।

৩) এরপর ফর্মটিতে আপনার নাম, বাবার নাম, অভিভাবকের নাম, বয়স, ঠিকানা, আধার নম্বর, ভোটার কার্ডের নম্বর, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর ইত্যাদি লিখে ফর্ম টিকে ফিলাপ করতে হবে।

৪) ফর্মের সাথে প্রয়োজনীয় নথিপত্র অর্থাৎ ভোটার কার্ডের জেরক্স, আধার কার্ডের জেরক্স, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের প্রথম পাতার জেরক্স এবং এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ফটো সেলফ অ্যাটেস্টেড করে দিতে হবে।

সবশেষে ফর্মটি একটি খামে ভরে পঞ্চায়েত অফিসে গিয়ে জমা দিতে হবে। এরপর গ্ৰাম পঞ্চায়েতের আধিকারিকরা আপনার জমা করা ফর্মটি ভালো করে মিলিয়ে দেখবেন। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে তারা আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। যেখানে আপনি আপনার বাড়ি তৈরি করবেন বলে ঠিক করবেন সেই জায়গাটাও তারা সরজমিনে পরিদর্শন করবেন। এরপরই এই প্রকল্পের টাকা আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি তিন কিস্তিতে পাঠানো হবে। এই টাকা দিয়ে দারিদ্র্য সীমার নিচে বসবাসকারী পরিবারগণ স্থায়ী এবং সুরক্ষিত বাসস্থান তৈরি করে সকল শান্তিতে বসবাস করতে পারবেন।

নিবন্ধটি ভাল লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। এছাড়াও বিভিন্ন চাকরি, সরকারি প্রকল্প, শিক্ষা সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য সবার আগে জানার জন্য আমাদের Sarkari Jagat-এর ওয়েবসাইটে নিয়মিত প্রবেশ করুন এবং আমাদের WhatsApp গ্রুপে যুক্ত হন, সেখানে নিয়মিত আপডেট দেওয়া হয়।উপরোক্ত লিঙ্কে ক্লিক করেই যুক্ত হতে পারেন এছাড়াও যুক্ত হওয়ার লিঙ্ক নিবন্ধের শেষে দেওয়া হয়েছে।👇👇👇

Important Links (গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্কসমুহ)

 🔥 আরও চাকরি ও প্রকল্পের আপডেট দেখুন 👇👇👇

🔥Pradhan Mantri Vaya Vandana Yojana

🔥 WB Aikyashree Prakalpa 2022

🔥Free Smartphone Scheme

🔥Laxmi Bhandar Prakalpa



Source link

Category: JOB