Aadhaar Update: কারও দমবন্ধ হয়ে আসছে, কেউ দরদর করে ঘামছেন, আধার-জটিলতায় হাসপাতালে অনেকে

By | June 1, 2022


আধারের জন্য লম্বা লাইন

Aadhaar Update: ধূপগুড়িতে রাত থেকে লম্বা লাইন পড়তে দেখা যায়। আর সকাল হতেই ভিড় আর গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েন অনেকে।

ধূপগুড়ি: বর্তমানে প্রায় সব ক্ষেত্রেই আধার কার্ডের প্রয়োজন হয়। ব্যাঙ্কে অ্য়াকাউন্ট খুলতে যান কিংবা মোবাইলের সিম কিনতে, সব ক্ষেত্রেই আধার কার্ড বাধ্যতামূলক। তাই সেই আধারে নতুন তথ্য সংযোজন করা বা ভুল সংশোধন করাও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কিন্তু সেই সব কাজ করার জন্য যে পদ্ধতির মধ্যে দিয়ে যেতে হয়, তা বেশ সময় সাপেক্ষ। অনলাইনে এইসব আপডেট করার ব্যবস্থা থাকলেও সেই সব কেন্দ্রের সংখ্য়া এতই কম যে প্রত্যন্ত অঞ্চলে এখনও লাইন দেওয়াই একমাত্র পথ। আর সেই লাইনে দাঁড়াতে গিয়ে আবারও অসুস্থ হয়ে পড়লেন অনেকে। বুধবার প্রচণ্ড গরমে ধূপগুড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বেশ কয়েকজন। আরও একবার সেই ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

গভীর রাত থেকে আধার কার্ড তৈরি এবং সংশোধনের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন হাজার হাজার মানুষ। দীর্ঘ লাইন পড়েছিল পোস্ট অফিসের সামনে। লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েন বেশ কয়েকজন। মাথা ঘুরে পড়ে যান মহিলারা। তাঁদেরকে জল দিয়ে সুস্থ করে কাউকে বাড়িতে পাঠাল আবার কাউকে হাসপাতালে পাঠাল পুলিশ। এখনও যে হাজার হাজার মানুষের আধার কার্ডের সংশোধন ও নতুন আধার কার্ড প্রয়োজন এই লাইন তা আরও একবার প্রমাণ করে দিয়েছে।

আদতে কয়েকটি ব্যাঙ্ক, কয়েকটি পোস্ট অফিস ও কিছু আধার সেন্টারে হয় এই সব কাজ। সেই সংখ্যা এতটাই কম যে এত বেশি সংখ্যক মানুষের কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। তাই বারবারই এই পরিস্থিতি তৈরি হতে দেখা গিয়েছে। ধূপগুড়ির ঘটনাও তার ব্যতিক্রম নয়। স্থানীয় মানুষ বলছেন, পুলিশ কোনও ব্যবস্থা করতে পারছে না, এত ভিড়।

এই খবরটিও পড়ুন



ধূপগুড়ি পুরসভার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, আধার কার্ড সংশোধন এবং নতুন আধার কার্ড তৈরির জন্য বুধবার টোকেন দেওয়া হবে। এই ঘোষণার পরই মঙ্গলবার গভীর রাত থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে পড়েন অসংখ্য মানুষ। সকাল হতেই ভিড় বাড়তে থাকে। সকাল নটা পর্যন্ত প্রায় দু হাজার মানুষ লাইনে দাঁড়িয়ে পড়েন। ব্যস্ততম থানা রোডে যানজট শুরু হয়ে যায়। পরে পুলিশের চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। কিন্তু ততক্ষণে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে হয়েছে অনেককে।



Source link