২ দিন আগেই ‘স্বাধীনতা’র ঘোষণা, সেই মারিউপোলেই ফের হামলা শুরু করল রাশিয়া!

By | April 24, 2022


মারিউপোেলের বর্তমান অবস্থা। ছবি:PTI

কিয়েভ: ক্রমেই জটিল হচ্ছে রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধ পরিস্থিতি (Russia-Ukraine War)। চলতি সপ্তাহেই মারিউপোলকে ‘স্বাধীন’ বলে ঘোষণা করেছিলেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন (Vladimir Putin)। কিন্তু পিছু হটতে নারাজ ইউক্রেনের সেনাবাহিনী। তারা দখল করে রেখেছে মারিউপোলের (Mariupol) সবথেকে বড় স্টিল উৎপাদন কেন্দ্র। এবার সেই প্ল্যান্টের দখল নিতেই ফের একবার নতুন করে ইউক্রেনের বন্দর শহরের ওপর হামলা শুরু করল রুশ বাহিনী। সংবাদসংস্থা রয়টার্স সূত্রে জানা গিয়েছে, ইউক্রেনের মারিউপোলে শনিবার সকাল থেকেই উদ্ধারকার্য শুরু করা হয়েছিল। যুদ্ধবিধ্বস্ত ওই শহরে যে সমস্ত বাসিন্দারা আটকে ছিলেন, তাদের বের করে আনার জন্য বিশেষ বাস পাঠানো হয়েছিল। নাগরিকরা সুরক্ষিতভাবে বেরিয়ে এলেও শহর ছাড়েননি ইউক্রেনের সেনাবাহিনী। তারা মারিউপোল তথা ইউক্রেনের অন্যতম বড় স্টিল প্ল্যান্ট দখল করে রেখেছে। গতকাল রাত থেকেই এই স্টিল প্ল্য়ান্ট (Steel Plant) লক্ষ্য করে হামলা শুরু করেছে রাশিয়ার সেনাবাহিনী।

চলতি সপ্তাহেই মারিউপোলকে স্বাধীন বলে ঘোষণা করেছিল রাশিয়া। সে দেশের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছিলেন, “মারিউপোলকে সফলভাবে স্বাধীন করতে পেরেছে রাশিয়া। এই সাফল্যে আমরা গর্বিত”। মারিউপোলকে স্বাধীন ঘোষণা করার সময়ই রাশিয়া জানিয়েছিল, ওই স্টিল প্ল্যান্ট দখলের প্রয়োজন নেই তাদের বাহিনীর। কিন্তু বর্তমানে ঘটছে ঠিক উল্টো ঘটনাই, এমনটাই দাবি ইউক্রেনের।

অন্যদিকে, মারিউপোল দখলের পরই ইউক্রেনের উপ প্রধানমন্ত্রী ইরানা ভেরেসচুকও জানিয়েছিলেন মারিউপোলের অবস্থা অত্যন্ত শোচনীয়। যেকোনও মুহূর্তেই বড় কোনও বিপর্যয় নেমে আসতে পারে। শুক্রবার রাতে ভিডিয়ো বার্তায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জ়েলেনস্কিও বিশ্ববাসীকে সতর্ক করে বলেন যে, ইউক্রেনের উপর হামলা কেবল রাশিয়ার আগ্রাসনের শুরু। এরপরে এভাবেই বাকি দেশও দখল করার চেষ্টা করবে রাশিয়া।

ইউক্রেনের তরফে জানানো হয়েছে, শনিবার থেকেই রাশিয়ার বাহিনী আজ়োভস্তলে এয়ারস্ট্রাইক চালাচ্ছে। মারিউপোলে এখনও যে সমস্ত ইউক্রেনীয় সেনারা রয়েছে, তাদের উপর লাগাতার আক্রমণ চালানো হচ্ছে। উল্লেখ্য, ডনবাস ও রাশিয়ার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত ক্রেমা অঞ্চলের সঙ্গে সরাসরি সংযোগ স্থাপনের জন্যে মারিউপোল অত্য়ন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বন্দর। এছাড়া কৃষ্ণসাগরের সঙ্গেও খালের মাধ্যমে সংযুক্ত মারিউপোলের এই বন্দর।



Source link