‘সবে তো ছয় মারা শুরু’, ব্যাটে ‘ডেঞ্জা’রাস লিখে ঘুরছেন নাইট তারকা রাসেল

By | April 3, 2022


স্টাফ রিপোর্টার: আন্দ্রে রাসেলের রোষে পাঞ্জাব সংহারের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা ছবি পোস্ট করেছিল কেকেআর। পাশাপাশি দু’টো ব্যাট। তার আকর্ষণীয় অংশ বলতে ব্যাটের পিছনের দিকের অংশটা। যেখানে লেখা– ‘ডেঞ্জা’রাস! শোনা গেল, জামাইকা থেকে আইপিএলে (IPL 2022) আসার সময়ই সঙ্গে করে নিয়ে এসেছেন।

আসলে টি-টোয়েন্টি পৃথিবীতে রাসেলের আরও একটা নাম আছে। ড্রে রাস। এবং রাতারাতি ‘ড্রে রাস’কে ‘ডেঞ্জা’রাস করে দেওয়া যথার্থও বটে! আইপিএলে রাসেলের এমন বেদম প্রহার বহুদিন তো দেখা যায়নি। গত দু’বছর ছুটকো-ছাটকা ঝড় উঠলেও দামাল ঘূর্ণিঝড়ে কখনও তা রূপান্তরিত হয়নি। কপাল খারাপ পাঞ্জাব কিংসের। রাসেলের পাশবিক ব্যাটিংয়ের বহুদিন পর তাদেরই পড়তে হল শুক্রবার রাতে। কপাল এবার পুড়বে মনে হচ্ছে আইপিএলের বাকি টিমগুলোরও। কারণ ৩১ বলে অপরাজিত ৭০ রান করে রাসেল হুঙ্কার দিয়ে রাখলেন যে, পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে যা হল, নিছক ‘ট্রেলার’ মাত্র। পূর্ণদৈর্ঘ্যের ‘সিনেমা’ এবার আসছে!

[আরও পড়ুন: ইমরানের সুপারিশে সায় রাষ্ট্রপতির, সংসদ ভেঙে দ্রুত নির্বাচনের পথে পাকিস্তান]

পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে মোটামুটি ছক্কার বর্ষণ করে দিয়েছেন রাসেল (Andre Russell)। একটা নয়, দু’টো নয়, আট-আটটা ছয় মেরে বসেন কেকেআরের ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার! আর বেধড়ক ঠ্যাঙানির পর রাতের দিকে সতীর্থ টিম সাউদিকে বলে দেন, “কখনও কখনও একটা গোটা টিম আটটা ছয় মেরে উঠতে পারে না। সেখানে আমি একাই আটটা ছয় মেরে দিলাম। তবে অতীতে এর চেয়েও বেশি ছয় কিন্তু মেরেছি আমি। ইনিংসে চোদ্দোটা ছয় মারার রেকর্ড আছে আমার। তার তুলনায় আটটা ছয়, কিছু নয়। এর চেয়েও বেশি মারতে চাই।’’ কিন্তু কী করে সম্ভব হল এহেন সংহার? রাসেল মৃদু হেসে বলতে থাকেন, “নেটে খাটছি তো। খাটছি, কী করে নিজেকে আরও ভয়ংকর করে তোলা যায় তা নিয়ে।”

রাসেলের রুদ্রমূর্তি দেখার পর কেকেআর (KKR) অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার বলে দিয়েছেন, “রাসেল মাসল বলতে যা বোঝায়, ঠিক তাই হল।” প্রশংসা করেছেন কেকেআর মালিক শাহরুখ খানও। পাঞ্জাব ম্যাচের আগে মায়াঙ্কদের ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার ওডেন স্মিথকে নিয়ে প্রচুর কথাবার্তা হচ্ছিল। অনেকেই স্মিথকে ‘বেবি রাসেল’ বলে ডাকতে শুরু করেছিলেন। কিন্তু ম্যাচে রাসেলকে সবচেয়ে বেশি নির্দয় স্মিথের বোলিংয়ের সময়ই দেখিয়েছে। শেষ দিকে স্মিথের পাঁচ বল থেকে ২৩ রান নেন রাসেল! পরে সাউদি তাঁকে জিজ্ঞাসা করলে বলেও দেন, “আমি ওর উপর চড়াও হতে পেরেছি। আমি জিতেছি। পরে কী হবে, দেখা যাবে।” পরে যা হবে, হবে। আপাতত এটুকু লেখা যায়, আইপিএলের বোলারকুলের উপর দুর্যোগের মেঘ ক্রমশ ঘনাচ্ছে। যে মেঘের নাম ড্রে রাস। ধুর, ‘ডেঞ্জা’রাস!

[আরও পড়ুন: আইনজীবী বসের প্রেমে মত্ত হয়ে স্ত্রীকে ক্রমাগত নিগ্রহ! কেরানি স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় মহিলা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ

নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে





Source link