শুভেন্দুর সভা শেষে এক বিজেপি কর্মীকে তুলে নিয়ে গেল পুলিশ, বাড়ি ফেরার পথে হামলায় জখম আরও ৫

By | November 28, 2022


পূর্ব মেদিনীপুর, ২৮ নভেম্বর (হি. স.) : পূর্ব মেদিনীপুরের ভুপতিনগরে শুভেন্দু অধিকারীর সভা ঘিরে একের পর চাঞ্চল্যকর ঘটনার অভিযোগ তুলল বিজেপি নেতৃত্বরা। একদিকে সভা শেষে শুভেন্দু অধিকারী চলে যাওয়ার অব্যবহিত পরেই আচমকা পটাশপুর থানার পুলিশ সভাস্থল থেকে এক বিজেপি কর্মীকে টেনে হিঁচড়ে তুলে নিয়ে যায়। তবে কোন কারণে এই গ্রেফতারি সে বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চায়নি পুলিশ। এরই পাশাপাশি শুভেন্দুর সভা শেষে বাড়ি ফেরার পথে পটাশপুরের চক্রশূল মোড়ের কাছে বিজেপি কর্মীদের বেধড়ক মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ বিজেপির। গোটা ঘটনায় পুলিশ ও তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিজেপি নেতৃত্বরা।

ভগবানপুরের বিজেপি বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ মাইতি’র দাবী, “শুভেন্দুবাবুর সভা যেদিন থেকে ঘোষিত হয়েছে তার প্রায় এক সপ্তাহ আগে থেকে বোমা, বন্দুক নিয়ে ধমকাতে শুরু করেছে তৃণমূল। আজকের সভার আগেই বিভিন্ন জায়গায় ব্যারিকেড করেছিল তৃণমূল। তবে বিভিন্ন ভাবে সভায় ব্যাপক ভীড় জমান সমর্থকরা”।
তিনি জানান, “এদিন সভা থেকে ফেরার পথে চক্রশূলে খাতিবাড়ে মোড়ের কাছে বিজেপি কর্মীরা আক্রান্ত হয়েছে। ৫ থেকে ৬ জন গুরুতর আহত হয়েছে। এর বিরুদ্ধে পুলিশকে আমরা জানিয়েছি, এমনটা চলতে থাকলে গণতান্ত্রিক পথে আমরা প্রতিবাদ জানাব”।
রবীন্দ্রনাথ আরও জানান, “গ্রামে কোনও উন্নয়নের কাজ নেই, শুধু টাকা মেরে নিয়ে বোমা বন্দুক জমা করছে। এলাকাবাসীদের হুমকি দিচ্ছে বিজেপি করলে তাঁদের প্রাণে মেরে ফেলা হবে। আতংক ছড়াতে চারিদিকে বোমা ছোঁড়া হচ্ছে। আমার বাড়ির সামনেও বোমা ছুঁড়েছে রাতের অন্ধকারে এসে”।
যদিও এলাকায় সন্ত্রাসের অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। তৃণমূলের দাবী, এলাকায় সন্ত্রাস ছড়ানোর অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। তবে পটাশপুরে শুভেন্দুর সভা থেকে ফেরার পথে বিজেপি কর্মীদের হামলার বিষয়ে তৃণমূলের তরফে কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি।



Source link