রাতের কলকাতায় বাড়ছে মদ্যপ চালকদের তাণ্ডব, পাকড়াও দেড়শোরও বেশি

By | April 5, 2022


Published by: Suparna Majumder |    Posted: April 5, 2022 9:18 am|    Updated: April 5, 2022 9:18 am

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাতের কলকাতায় (Kolkata Night) বাড়ছে মদ্যপ গাড়িচালকদের তাণ্ডব। এমনই খবর পাওয়া গিয়েছে সূত্র মারফত। জানা যাচ্ছে, গত সপ্তাহের শেষে মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর জন্য দেড়শোরও বেশি চালককে ধরা হয়েছে।

শুক্রবার রাত দশটা থেকে শনিবার সকাল পাঁচটা পর্যন্ত ১৭২ জন মদ্যপ গাড়ি চালককে পাকড়াও করা হয়েছে। যা কিনা রেকর্ড। শেষ ২০১৭ সালে এক রাতে এত মদ্যপ চালককে ধরা হয়েছিল। উৎসবের মরশুম এখন নয়। নয় শীতের রাত। তারপরও শহরের রাস্তায় মদ্যপ চালকদের এই বাড়বাড়ন্তে অবাক অনেকেই।

জানা গিয়েছে, গত সপ্তাহের শেষে শুধুমাত্র পার্কস্ট্রিট ক্রসিং থেকে ২০ জন মদ্যপ চালককে ধরা হয়। অন্তত ২১ জন চালককে পাকড়াও করা হয়েছে চিংড়িঘাটা, যাদবপুর, রুবি হাসাপাতালের মোড় থেকে। শুধু তাই নয় অনেকেই রাতের দিকে বেপরোয়াভাবে তীব্র গতিতে গাড়ি চালাচ্ছেন. এমন অন্তত ১৯৭ গাড়ি দেখা গিয়েছে CCTV ফুটেজে। পুলিশ জানাচ্ছে, শুধুমাত্র শনিবার রাতেই ১০৫টি বেপরোয়া গাড়ির রিপোর্ট পাওয়া গিয়েছে। বিপজ্জন মোড়গুলিও তীব্র গতিতে গাড়ি চালানোর খবর পাওয়া গিয়েছে। 

[আরও পড়ুন: আলিয়ার পর ভাইরাল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিডিও, তৃণমূলকে ‘পুড়িয়ে মারা’র নিদান বাম ছাত্রর]

নিয়ম লঙ্ঘনের তালিকায় অনেক মোটরবাইক চালকও রয়েছেন। মদ্যপ অবস্থায় কিংবা বেপরোয়া গতিতে বাইক চালানোর ঘটনা তো রয়েইছে, পাশাপাশি অনেকেই হেলমেট ছাড়া বাইক চালানোর জন্য ধরা পড়েছেন। একই বাইকে আবার তিনজনকে সফর করতে দেখা গিয়েছে। এই ধরনের বেনিয়মের জন্য তিন মাসের জন্য গাড়ি চালানোর লাইসেন্স সাসপেন্ড হতে পারে।

কিন্তু অপরাধের সংখ্যা যেন কিছুতেই কমার লক্ষ্মণ নেই। অবশ্য রাতের শহরে কড়া নজর রয়েছে ট্রাফিক পুলিশের। শোনা গিয়েছে, পঞ্চাশটি নতুন ব্রেথালাইজার কেনা হচ্ছে। যাতে অতিমারী পরিস্থিতিতেও সুরক্ষিতভাবে চালকদের পরীক্ষা করা যেতে পারে। শহরের প্রায় ২৫টি ট্রাফিক গার্ডে নতুন এই মেশিনগুলি দেওয়া হবে বলেই খবর। 

[আরও পড়ুন: মাধ্যমিকেও পুষ্পা রাজ! ‘আপুন লিখেগা নেহি,’ উত্তরপত্রে লিখল পরীক্ষার্থী, হতভম্ব শিক্ষক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ

নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে





Source link