রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবনে বিশ্ব বৈষ্ণব সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রীআধ্যাত্মিকতার মাধ্যমেই মানব সেবার ধর্ম সম্পাদন করা সম্ভব

By | November 30, 2022


নিজস্ব প্রতিনিধি, আগরতলা, ৩০ নভেম্বর৷৷  আধ্যাত্মিকতার মাধ্যমেই মানব সেবার ধর্ম সম্পাদন করা সম্ভব৷ একটা সময় ছিল যখন আমরা আমাদের কৃষ্টি, সংস্ক’তি, পরম্পরা এগুলি ভুলতে যাচ্ছিলাম৷ বর্তমান রাজ্য সরকার এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় সরকারের সময় এগুলি পুনরুদ্ধার করা হয়েছে৷ মানুষ তার নিজ ধর্মের মাধ্যমে এসব উপলব্ধি করতে পারছেন৷ আজ রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবনে বিশ্ব বৈষ্ণব সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী প্রফেসর (ডা.) মানিক সাহা একথা বলেন৷ তিনি বলেন, বিগত দিনে এমন একটা অবস্থা ছিল যখন নাস্তিকরাই প্রাধান্য পেত৷ যার নেতিবাচক প্রভাব আমাদের সন্তানদের মধ্যে পড়েছে৷ কিন্তু এখন সেই অবস্থার উন্নতি হয়েছে৷ বর্তমান রাজ্য বা দেশের সরকার মানব প্রেমী ও ধর্মপ্রাণ৷
সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, মানুষ মূলত সবাই ধর্মপ্রাণ৷ ঈশ্বরের সান্নিধ্যে আমাদের মনে ও প্রাণে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গী জাগ্রত হয়৷ এতে নিজের পরিবারের পাশাপাশি সমাজের উপরও ইতিবাচক প্রভাব বিস্তার করে৷ তিনি আরও বলেন, ঈশ্বরের উপর বিশ্বাস থাকা দরকার৷ তিনি বলেন, চলার পথে অনেক সময় পথের বিচ্যতি ঘটে৷ কিন্তু ধর্মপ্রাণ এবং সত্যিকার অর্থে ভগবান প্রেমী হলে মানুষ নিজেকে আবার সঠিক পথে নিয়ে আসতে পারে৷ সাধু সন্তরা সমাজের জন্য প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছেন৷ সমাজের প্রতিটি মানুষের প্রতি তাদের দায়দায়িত্ব অনেক৷ তারা ঈশ্বর এবং মানুষের মধ্যে সেতু বন্ধের কাজ করেন৷ সমাজের প্রতিটি মানুষের উচিত তাদের মরণাগত হয়ে মানুষের কাজ করা৷  
বিশ্ব বৈষ্ণব সম্মেলন উপলক্ষে মুখ্যমন্ত্রী প্রভুপদের একটি মরণিকার আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করেন৷ সম্মেলনে এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ভক্তি সুুন্দর স্বামী মহারাজ, বিষ্ণু মহারাজ, আচার্য শ্রী চৈতন্য গৌড়িয় মঠ প্রমুখ৷



Source link