যৌন মিলনের দশ মিনিট পরেই স্মৃতিশক্তি হারালেন বৃদ্ধ! কেন হল এমন?

By | May 28, 2022


সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যৌন মিলনের (Sexual Intercourse) পরে অসুস্থ হওয়ার ঘটনা নতুন না। ক’দিন আগেই এক ব্যক্তি যৌন সংসর্গের পরে হৃদরোগে আক্রান্ত হন। কিন্তু যৌন মিলনের পর স্মৃতি লোপ পাওয়ার ঘটনা নতুন। সম্প্রতি আয়ারল্যান্ডের (Ireland) এক ব্যক্তির এমন অভিজ্ঞতার হয়। জানা গিয়েছে, স্ত্রীর সঙ্গে যৌন আনন্দ নেওয়ার দশ মিনিট পরেই স্মৃতি লোপ পায় (Short-term Amnesia) তাঁর।

তবে কিনা কোনও যুবকের সঙ্গে এমন ঘটনা ঘটেনি। আয়ারল্যান্ডের মেডিক্যাল জার্নাল জানিয়েছে, ওই ব্যক্তির বয়স ৬৬ বছর। সম্প্রতি তিনি স্ত্রীর সঙ্গে যৌন মিলনের পরেই বুঝতে পারেন বেশ কিছু স্মৃতি লোপ পেয়েছে। এই ঘটনা ঘটে সঙ্গমের দশ মিনিট পরে। ওই মেডিক্যাল জার্নালে জানানো হয়েছে, স্বল্পমেয়াদী স্মৃতি লোপ পেয়েছিল বৃদ্ধের। হঠাৎই খেয়াল করেন তিনি, গতকাল কী করেছেন তা কিছুতেই মনে করতে পড়ছেন না। আগের দিন ছিল তাঁর বিবাহবার্ষিকীর অনুষ্টান। তাও ভুলে যান বৃদ্ধ। একাধিক বিষয়ে স্ত্রী ও সন্তানদের প্রশ্ন করেন তিনি, যেগুলি সম্পর্কে তাঁর জানার কথা ছিল।

[আরও পড়ুন: ভয়ংকর ঘটনা ভুবনেশ্বরের নন্দনকাননে, বিষাক্ত সাপের কামড়ে প্রাণ গেল সিংহীর]

আইরিশ মেডিক্যাল জার্নাল জানাচ্ছে, চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় এই পরিস্থিতিকে বলা হয় টিজিএ (TGA)। অর্থাৎ ট্রানসিট গ্লোবাল অ্যামনেশিয়া। ৫০ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে যাঁদের বয়স, তাঁরা এই রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। এমন কাণ্ড ঘটতে পারে যৌন মিলনের পরে। যেমনটা ঘটেছিল ৬৬ বছরের বৃদ্ধের ক্ষেত্রে। তবে এই রোগ ঘণ্টা পাঁচেকের বেশি স্থায়ী হয় না।

[আরও পড়ুন: পণ দিতে না পারায় ‘খুন’ একই পরিবারের তিন বধূ ও তাঁদের দুই সন্তান! মর্মান্তিক ঘটনা রাজস্থানে]

 

এই ব্যক্তির ক্ষেত্রেও বেশ কয়েক ঘণ্টা পরে স্মৃতি ফিরে এসেছিল। জানা গিয়েছে, বেশ কয়েক মাসে আগেও একই ঘটনা ঘটেছিল আইরিশ ব্যক্তির সঙ্গে। যৌন মিলনের কিছুক্ষণ পরে বেশ কিছু তথ্য ও ঘটনা মস্তিষ্ক থেকে উবে গিয়েছিল। চিকিৎসকরা বলছেন, যৌনতা ছাড়াও আরও কিছু ক্ষেত্রে টিজিএ হানা দিতে পারে। যেমন, অতিরিক্ত শারীরিক ক্রিয়া, অতিরিক্ত ঠান্ডা ও গরম জলে স্নান করা, এছাড়াও মানসিক চাপ, অতিরিক্ত বেদনা থেকেই এই কাণ্ড ঘটতে পারে। ভয় না পেয়ে এই সময় ধৈর্য্য রাখাটাই আসল। কারণ স্মৃতি ফিরে আসবে। ফলে রোগটিকে খুব বেশি গুরুত্ব দিতে নারাজ চিকিৎসকরা।  



Source link