‘মোদি হ্যায়, মুমকিন হ্যায়’! কয়লা-বিদ্যুৎ সংকট নিয়ে তীব্র কটাক্ষ চিদম্বরমের

By | April 30, 2022


সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলিতে সঞ্চিত কয়লার (Coal) ভাণ্ডারে নাকি টান পড়েছে। মজুত কয়লা ফুরিয়ে আসছে। তাই অচিরেই দেখা দিতে পারে বিদ্যুতের (Electricity) ঘাটতি। এহেন আশঙ্কার পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রের মোদি সরকার প্যাসেঞ্জার ট্রেন বাতিল করে কয়লা পরিবহণের কাজে লাগানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যার তীব্র সমালোচনা করলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম ( P Chidambaram)।

সম্ভাব্য কয়লা সংকট মোকাবিলায় রেলমন্ত্রক এ পর্যন্ত ৪২টি যাত্রীবাহী ট্রেন (Passengers Trains)বাতিল করেছে দেশের নানা প্রান্তে। ছত্তিশগড়, ওড়িশা, মধ্যপ্রদেশ ও ঝাড়খণ্ডের মতো কয়লা উৎপাদনকারী রাজ্যগুলি থেকে কয়লার রেক পাঠাতে কাজে লাগানো হবে প্যাসেঞ্জার ট্রেন। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে সেই রাজ্যগুলির নিত্যযাত্রীদের। এহেন পরিস্থিতিতে ক্ষোভ জানিয়ে শীর্ষ কংগ্রেস (Congress) নেতা চিদম্বরম টুইট করে বিঁধেছেন মোদি সরকারকে। কটাক্ষ করেছেন, কয়লার প্রাচুর্য্য, বিশাল রেল নেটওয়ার্ক, তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলির অব্যবহৃত ক্ষমতা। এরপরও চরম বিদ্যুৎ ঘাটতি। মোদি সরকারকে অবশ্য এ জন্য দোষ দেওয়া যায় না। এটা কংগ্রেসের ৬০ বছরের শাসনের ফল! সরকার একেবারে সঠিক সমাধানসূত্র বের করেছে। যাত্রী ট্রেন বন্ধ করে কয়লার রেক পাঠাও!

[আরও পড়ুন: নিজের নাতনিকে চুরি করে নিঃসন্তান প্রেমিকাকে উপহার! উত্তরপ্রদেশে গ্রেপ্তার অভিযুক্ত দাদু]

গোটা ভারতের মোট বিদ্যুৎ চাহিদার ৭০ শতাংশই পূরণ হয় কয়লা কাজে লাগিয়ে। কেন্দ্রকে কাঠগড়ায় তুলে চিদম্বরমের আরও খোঁচা, কেন্দ্রীয় কয়লা, রেল বা বিদ্যুৎ মন্ত্রকের কোনও অযোগ্যতাই নেই। দোষ ওইসব মন্ত্রকের আগেকার কংগ্রেসি মন্ত্রীদের। ‘মোদি হ্যায়, মুমকিন হ্যায়’। জানা গিয়েছে, সাউথ ইস্টার্ন সেন্ট্রাল রেলওয়ে ডিভিশন কয়লা উৎপাদনকারী জোন কভার করে। তারা বাতিল করেছে ৩৪টি প্যাসেঞ্জার ট্রেন। আর উত্তর ভারতের বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলির জন্য কয়লা নেয় যে নর্দার্ন রেলওয়েজ, তারা বাতিল করেছে ৮টি ট্রেন।

[আরও পড়ুন: অকারণে ভাঙছে জানলার কাচ, কেউ ছুঁড়ছে ইট, ভূতের ভয়ে কাঁটা খড়দহের পাতুলিয়া]

সেন্ট্রাল ইলেকট্রিসিটি অথরিটির দৈনিক মজুত থাকা কয়লা সংক্রান্ত রিপোর্ট অনুসারে ১৬৫টি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫৬টির ভাণ্ডারে ১০ শতাংশ বা তার কম কয়লা আছে। অন্ততঃ ২৬টি কেন্দ্র মজুত রয়েছে ৫ শতাংশেরও কম কয়লা। একটি সূত্রের খবর, একাধিক প্যাসেঞ্জার ট্রেন বাতিল করিয়ে রেলমন্ত্রক দৈনিক গড়ে কয়লার রেক লোডিংয়ের পরিমাণ বাড়িয়ে চারশোর বেশি করেছে। গত ৫ বছরে এটা সবচেয়ে বেশি। রেলকর্তারা জানিয়েছেন, রেলমন্ত্রক কোল ডিউটির জন্য দিনে ৫৩৩টি রেক চালু করেছে, যা গত বছরের চেয়ে ৫৩টি বেশি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ

নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে





Source link