মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে ইতিহাস বদলাতে চাই কেকেআর, সূর্যকুমার-কামিন্সের নামা নিয়ে প্রশ্ন

By | April 6, 2022


রাজর্ষি গঙ্গোপাধ্যায়: সূর্যকুমার যাদব (Suryakuma Yadav) আজ খেলছেন? নাকি খেলছেন না? খেললেও কি পুরো ফিট সূর্য যাদব নামবেন?

পুণের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মাঠে যাওয়া অনেকটা পাহাড় চড়ার মতো ব্যাপার। পাকদণ্ডী বেয়ে-বেয়ে রাস্তা উঠে গিয়েছে। ট্রাম-বাসের ব্যাপার নেই। মোটরগাড়ি এক এবং একমাত্র ভরসা। সন্ধের দিকে মাঠে বসলে বেশ একটা ফুরফুরে বাতাস দেয়। তা, বুধবার এ মাঠে যে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে নামছে কেকেআর, তাদের সঙ্গে যুদ্ধের ইতিহাসের জাবদা খাতা টেনে বার করলে যে কোনও সোনালি-বেগুনি সমর্থকের ফুরফুরে নয়, দমবন্ধ লাগবে! আইপিএলের (IPL 2022) গত চোদ্দো বছরের ইতিহাসে দুই টিম যুযুধান হয়েছে উনত্রিশ বার, আর শাহরুখ খানের টিমের কপালে জয়তিলক উঠেছে মোটে সাত বার। বরং আজও, এত দিন পরেও দগদগে হয়ে রয়েছে প্রথম আইপিএলের স্মৃতি। যে আইপিএলে টানা হারে ন্যুব্জ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের (Sourav Ganguly) কেকেআরের কাছে মুম্বই ম্যাচের আগে কাতর আর্তি জানিয়েছিলেন কিং খান। বলেছিলেন, তোমাদের কাছে আমি কখনও কিছু চাইনি। আজ চাইছি। তোমরা শুধু আমাকে এই ম্যাচটা জিতিয়ে দাও। মুম্বইয়ে লোকে আমাকে বাদশা বলে।

[আরও পড়ুন: কেকেআরের নতুন ভিডিওতে চমক, নয়া অবতারে আবির্ভাব শ্রেয়স-রাসেলদের]

‘প্রতিদানে’ সৌরভের কেকেআর মাত্র ৬৭ অলআউট হয়ে গিয়েছিল সে দিন। মহালজ্জার সমুদ্রে নিজেদের নিক্ষেপ করে। পরবর্তীতেও যে ভাগ্যের দারুণ উন্নতি হয়নি, দুই টিমের সম্মুখসমরের ইতিহাসই তার প্রামাণ্য নথি। কিন্তু বর্তমানের প্রেক্ষাপট-পরিস্থিতি সম্পূর্ণ আলাদা। দুই টিমের অবস্থা যা, তা ভাবলেই নাইট সমর্থকদের মনে ফুরফুরে বাতাস বইবে। অবিকল মহারাষ্ট্র স্টেডিয়ামের মাঠের মতো! এবার যে কেকেআর (KKR) এগিয়ে, মুম্বই পিছিয়ে! নাইটদের একমাত্র ভাবনা কামিন্স খেললে, বসবেন কে? চলতি আইপিএলে কেকেআর প্রথম তিনটে ম্যাচের জিতেছে দু’টোয়। সেখানে রোহিত শর্মার মুম্বই ইন্ডিয়ান্স দু’টো ম্যাচ একটাও জেতেনি। বোলিংয়ে একমাত্র জসপ্রীত বুমরাহ ছাড়া কাউকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সবচেয়ে বড় কথা, সূর্যকুমার যাদবকে এখনও মাঠে নামাতে পারেনি মুম্বই। এবং সেটাই এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বড় ধাক্কা।

আর সূর্য-রহস্য চলছে যা, দেখার মতো! এখানে বলে রাখা ভাল, রোহিত নন, গত কয়েক বছরে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের (Mumbai Indians) সবচেয়ে ধুঁয়াধার ব্যাটার সূর্যকুমার। ভারতীয় ক্রিকেট মহল যাঁকে দেশের ৩৬০ ডিগ্রি ক্রিকেটার বলে ডাকে। দেশের মাঠে গত ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের সময় হাতের আঙুলে চোট পান সূর্য। এরপর তিনি জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমি চলে যান চোট সারাতে। মুম্বই ছাউনিতে ঢোকেন রাজস্থান রয়্যালস (Rajasthan Royals) ম্যাচের আগে। সবাই ধরেই রেখেছিল, মুম্বইয়ের নাম্বার থ্রি এবার নেমে পড়বেন টিমের কাঁধে ভরসার হাত রেখে। আর এ দিন খোঁজ চালিয়ে যা জানা গেল, রীতিমতো অবাক করার মতো।

[আরও পড়ুন: কেকেআরের ‘ব্রাত্য’ দুই তারকার অনবদ্য যুগলবন্দি, আইপিএলে দ্বিতীয় জয় কোহলিদের]

সূর্য নাকি এখনও পুরো ফিট নন! ট্রেনিং সেশনে ফিল্ডিং করার সময় নাকি তিনি আবিষ্কার করেছেন যে, এখনও আঙুলে লাগছে। সেই কারণেই রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে তাঁকে নামানোর ঝুঁকি নেয়নি মুম্বই। অথচ জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির ফিট সার্টিফিকেট ছাড়া আইপিএল খেলতে চলে আসা সম্ভবই নয়! দেশের ক্রিকেটমহলে বলাবলি চলছে, জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে (NCA) তা হলে এত দিন ধরে কীসের রিহ্যাব হল সূর্যর, মাঠে নেমে যদি আবার যন্ত্রণাই হয়? এ দিন মুম্বইয়ের নেট সেশনে ব্যাট করেছেন মুম্বইকর। কিন্তু আঙুলে ব্যান্ডেজ করা ছিল, সেটা দৃশ্যমানও। একাংশের ধারণা, সাধারণ বিচারে এখনও মাঠে নামার জায়গায় নেই সূর্য। কেকেআরের বিরুদ্ধেও নামার কথা নয়। কিন্তু টানা হারে মুম্বই এখন বিপর্যস্ত। ভাগ্য ফেরাতে সূর্যকে দরকার। যেনতেন প্রকারেণ।

দেখা যাক, কোনটা হয়? তবে এটুকু লেখাই যায়, সূর্য না পারলে কেকেআরের আরও পোয়াবারো! শখ করে ‘শ্রীযুক্ত ৩৬০ ডিগ্রি’র ভারতীয় সংস্করণের সামনে কে আর পড়তে চায়?



Source link