নাশকতার আগুনে পুড়ল ধান, একজনকে গণধোলাই

By | November 27, 2022


নিজস্ব প্রতিনিধি, কল্যাণপুর, ২৭ নভেম্বর৷৷ ক্ষেত থেকে ধান কাটার পর অপরের জমিতে স্থুপ করে জমিয়ে রাখতে গিয়ে বিপত্তি৷ বিপুল পরিমানে ধানের মধ্যে পেট্রোল ঢেলে লাগিয়ে দেওয়া হল আগুন৷ ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হলে সম্মিলিতভাবে অভিযুক্তকে দেওয়া হয় গণপ্রহার৷ বর্তমানে অভিযুক্ত আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজধানীর জিবি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন৷
ঘটনার বিবরনে জানা যায় কল্যাণপুর থানাধীন কমলনগর এলাকার বিষ্ণু মাস্টার পাড়ার কৃষক নেপাল দাস ওনার নিজের জমি থেকে ধান কেটে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার আগে পার্শবর্তী সঞ্জয় দাসের জমিতে স্তুপ করে রাখে৷ সঞ্জয় দাসের তরফ থেকে প্রথমে ধান স্তূপাকার করে রাখার ব্যাপারে আপত্তি করা হয়েছিল, কৃষক নেপাল দাস ভেবেছিলেন সবগুলা ধান একসাথে করার পরে নিজ বাড়িতে নিয়ে যাবেন৷
কিন্তু এই সময়টুকু সহ্য হয়নি পেশায় রাজমিস্ত্রি সঞ্জয় দাসের৷ অভিযোগ আজ অর্থাৎ রবিবার ভোরের আলো ফোটার সাথে সাথে পেট্রোল ঢেলে স্তুপ করে রাখা ধানের মধ্যে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়৷ ঘটনা চাক্ষুষ করার পরপরই এলাকা জুড়ে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এবং ব্যাপক প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়৷ কিছুক্ষণের মধ্যেই খবর পেয়ে কল্যাণপুর থেকে অগ্ণি নির্বাপক দপ্তরের কর্মীরা ছুটে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও যা ক্ষতি হওয়ার হয়ে গেছিল৷
এদিকে এই ঘটনার জেরে উত্তেজিত হয়ে সম্মিলিতভাবে একদল গ্রামবাসী অভিযুক্ত সঞ্জয় দাসের ওপর হামলে পড়ে৷ একটা সময় সঞ্জয় দাস গণরুষ থেকে বাঁচতে নিজ ঘরে ঢুকে আত্মগোপন করেছিল, কিন্তু এলাকাবাসীরা সম্মিলিতভাবে তাকে ঘর থেকে টেনে হিঁচড়ে বার করে বেধড়ক মারধর করে বলে জানা গেছে৷ এরপর সঞ্জয় দাসের পরিবারের লোকজন তাকে মারাত্মক আহত অবস্থায় তেলিয়ামুড়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার অবস্থা বেগতিক হওয়ায় তাকে সাথে সাথে জিবি হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়৷ শেষ সংবাদ পর্যন্ত জিবি হাসপাতালের ট্রমা সেন্টারে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসা চলছে সঞ্জয় দাসের৷ কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলের ছুটে যায় কল্যাণপুর থানার পুলিশ৷ জানা গেছে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ সবটাই খতিয়ে দেখছে কল্যাণপুর পুলিশ৷ সংবাদ লেখা অব্দি মামলা হয়নি কল্যানপুর থানায়৷



Source link