ধর্মনগর সরকারি মহাবিদ্যালয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সাথে ছাত্রছাত্রীদের মতবিনিময় ছাত্রছাত্রীরা দেশ ও রাজ্যের ভবিষ্যৎ গড়ার কারিগর : মুখ্যমন্ত্রী

By | December 3, 2022


নিজস্ব প্রতিনিধি, আগরতলা, ৩ ডিসেম্বর৷৷ আগামী দিনে যারা বেশী জ্ঞানার্জন করবেন, জ্ঞানের অধিকারী হবেন, তারাই ভবিষ্যতে দেশ এবং পৃথিবীর নেতৃত্ব দেবেন৷ আজকের ছাত্রছাত্রীরা আগামী দিনে দেশের ও রাজ্যের ভবিষ্যৎ৷ ছাত্রছাত্রীদের দেশের ও রাজ্যের উন্নতির জন্য অনেক কিছু করার আছে৷ আজ ধর্মনগর সরকারি মহাবিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি ও ছাত্রছাত্রীদের সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে এ কথাগুলি বলেন মুখ্যমন্ত্রী প্রফেসর (ডা.) মানিক সাহা৷
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরা শিল্প উন্নয়ন নিগমের চেয়ারম্যান টিংকু রায়, উত্তর জেলার পুলিশ সুুপার ড. কিরণ কুমার কে, জেলা শিক্ষা আধিকারিক সনৎ নাথ, ধর্মনগর সরকারি মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ গৌতম দাস প্রমুখ৷ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কালাছড়া পঞ্চায়েত সমিতির চেয়ারপার্সন টিংকু শর্মা৷ অনুষ্ঠানে ছাত্রছাত্রীরা মুখ্যমন্ত্রীর হাতে তাদের বিভিন্ন দাবিসনদ তুলে দেন৷ এই উপলক্ষে মুখ্যমন্ত্রী ও অন্যান্য অতিথিদের উপস্থিতিতে মহাবিদ্যালয়ের এলামনি অ্যাসোসিয়েশন এর একটি ওয়েব পোর্টালের উদ্বোধন হয়৷
অনুষ্ঠানে বক্তব্যে মুখ্যমন্ত্রী প্রফেসর (ডা.) মানিক সাহা বলেন, মানুষের জীবনে ছাত্রজীবনটা হল সুুবর্ণ সময়৷ এই সময়কালে মানুষ তার জীবনটা গড়ে তুলতে পারে৷ বর্তমান সময়ের ছাত্রছাত্রীরা নিজেদের সঠিক ভাবে তৈরী করতে অনেক বেশী পড়াশোনা করে৷ রাজ্য সরকার মহিলাদের সশক্তিকরণ করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে৷ রাজ্য সরকার মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের জন্য বিনা খরচে পড়াশোনা করার ব্যবস্থা করেছে৷ চাকরিক্ষেত্রে মহিলাদের ৩৩ শতাংশ সংরক্ষণ এর ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ তিনি বলেন, বর্তমানে কতিপয় যুবকের মধ্যে নেশার প্রতি প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে৷ সেই নেশা থেকে যুব সমাজকে মুক্ত করার জন্য রাজ্য সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে৷ এই নেশা থেকে যুব সমাজকে বেরিয়ে এসে নেশামুক্ত সমাজ গঠন করার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান৷ তিনি ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলার ও বিভিন্ন কো-কারিকুলাম এক্টিভিটিস এর সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য বলেন৷ ছাত্রছাত্রীদের পুথিগত বিদ্যার পাশাপাশি আমাদের দেশের যে মহান ব্যক্তিত্ব, মনীষীরা রয়েছেন তাদের সম্পর্কে জানার জন্য আহ্বান জানান৷ তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে যে কেন্দ্রীয় সরকার রয়েছে সেই সরকারের সময়কালে কোন কিছুর জন্য আন্দোলন করতে হয় না৷ এর প্রকৃত উদাহরণ ত্রিপুরার যোগাযোগ ব্যবস্থা, যেখানে ত্রিপুরার মূল জাতীয় সড়ক এনএইচ ৮ কে চার লেন করার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে৷ তার পাশাপাশি ত্রিপুরাতে ৪টি রোপওয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে৷ রেল যোগাযোগের ক্ষেত্রেও ত্রিপুরার অনেক উন্নতি সাধন হচ্ছে বলে তিনি জানান৷
অনুষ্ঠানে বক্তব্যে টিআইডিসি’র চেয়ারম্যান টিংকু রায় বলেন, বর্তমান সরকার প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর একটা রাজ্যের উন্নয়নের জন্য যেসমস্ত পরিকাঠামো দরকার মুখ্যমন্ত্রী প্রফেসর (ডা.) মানিক সাহার নেতৃত্বে রাজ্য সরকার সমস্ত ক্ষেত্রে উন্নতি সাধন করেছে৷ তিনি বলেন, বর্তমানে উত্তর পূর্বা’লের মধ্যে ত্রিপুরা উন্নয়নের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশী গতিতে এগিয়ে যাওয়া রাজ্য৷ এদিনের অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষা আধিকারিক সনৎ নাথ৷



Source link