জয় সুনিশ্চিত করে ঘরে ফিরবে কার্যকর্তারা ঃ রাজীব ভট্টাচার্য

By | November 27, 2022


নিজস্ব প্রতিনিধি, চড়িলাম, ২৭ নভেম্বর৷৷ রবিবার ’ঘর ঘর বিজেপি ’ অভিযানের মধ্যে দিয়ে জনসম্পর্ক শুরু করেছে বিজেপি৷ রবিবার ষাটটি মন্ডলে একযোগে শুরু হয় এই অভিযান৷ এ উপলক্ষে ষাটটি মন্ডলে অনুষ্ঠিত হয় পদযাত্রা এবং সমাবেশ৷  বিজেপির প্রদেশ সভাপতি  রাজীব ভট্টাচার্য বিশালগড় মন্ডলে ’ঘর ঘর বিজেপি’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন৷  প্রথমে  বিশালগড় মন্ডল কমিটির ব্যবস্থাপনায়  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন কি বাত শুনেন নেতৃবৃন্দ এবং সকল কার্যকর্তা৷  এরপর মোটর স্ট্যান্ড সংলগ্ণ ডঃ শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী মোড় থেকে শুরু হয় সুবিশাল পদযাত্রা৷ এই পদযাত্রা গিয়ে সমাপ্ত হয় বিশালগড় নিউমার্কেটে৷   সেখানে আয়োজিত সমাবেশে  বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিজেপির প্রদেশ সভাপতি রাজিব ভট্টাচার্য বলেন বিজেপির কার্যকর্তারা রিপোর্ট কার্ড নিয়ে জনতার দরবারে যাবেন৷ আজ জনতার দরবারে রিপোর্ট কার্ড নিয়ে যাওয়ার পালা আনুষ্ঠানিক ভাবে  শুরু হয়েছে৷ বিজেপি মানুষের জন্য কাজ করেছে বলেই আজ ঘরে ঘরে যাওয়ার অধিকার রয়েছে৷ প্রদেশ সভাপতি রাজীব ভট্টাচার্য বলেন  আজকের জনজোয়ার প্রমাণ করে দিয়েছে বিশালগড়ে পদ্মফুল  ফুটতে চলেছে৷ কার্যকর্তারা লক্ষ্য স্থির করে নিয়েছে৷ সিপিএম আস্তাবলে জনসভা করে ঘোষণা দিয়ে দিয়েছে তাদের ক্ষমতায় ফিরে আসার রাজনৈতিক ক্ষমতা নেই৷ তারা তাই বন্ধুর খোঁজ শুরু করে দিয়েছে৷    উপনির্বাচনে  ২৯ বছর পর যুবরাজনগরের জনতা সিপিএমকে  বিদায় জানিয়ে বিজেপিকে জয়ী করেছে৷ এতেই অনুমান করা যায় আগামী নির্বাচনে সিপিএম অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে পারবেনা৷ যাদেরকে বিজেপি বিধায়ক বানিয়েছিল, মন্ত্রী বানিয়েছে৷ তারা বুঝে গিয়েছে বিজেপিতে দুর্নীতির সুযোগ নেই৷ তাই  তারা আজ সিপিএমকে সুবিধা দেওয়ার কাজ করছে৷  সারা রাজ্যের সঙ্গে এই বিশালগড়েও কংগ্রেসের কর্মীরা ২৫ বছর অত্যাচারিত হয়েছে৷ অথচ আজ এই অত্যাচারীদের সঙ্গে  আঁতাত করতে মরিয়া  কংগ্রেসের নেতারা৷  তিনি বলেন এই পরিবারের কুমন্ত্রণা যাদের কানে যাবে তাদের মাথা মুণ্ডন করে পাগল হয়ে ঘুরতে হবে৷ এরা জনবিচ্ছিন্ন হয়ে শান্তি শৃঙ্খলা বিনষ্ট  করতে চাইছে৷ তিনি সাবধান করে দিয়ে বলেন, বিজেপি প্রতিবাদ প্রতিরোধ করতে জানে৷কার্যকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন কেউ প্ররোচনায় পা দেবেন না৷ কোন হাঙ্গামা হুজ্জতি করলে গণতান্ত্রিক উপায়ে  জবাব দেয়া হবে৷     আজ তারা গণতন্ত্রের জন্য আর্তনাদ করছে৷ বিজেপির সরকার প্রতিষ্ঠার পর রাজ্যের রাজনৈতিক সন্ত্রাস খুন বন্ধ হয়েছে৷ যাদের আমলে মন্ত্রী বিধায়ক খুন হয়েছে৷ বিশালগড়ে দুইজন বিধায়ক খুন হয়েছে৷ তাদের মুখে গণতন্ত্রের কথা মানায়না৷ তিনি বলেন আগামী বিধানসভা নির্বাচনে মাতৃশক্তি বড়ো ভূমিকা নেবে৷কারণ  মাতৃশক্তিকে স্বশক্তিকরণের কাজ করছে সরকার৷ ৩৩ শতাংশ সংরক্ষণ দিয়েছে চাকরির ক্ষেত্রে৷ স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে সাড়ে তিন লক্ষ মহিলাকে স্বাবলম্বী করার কাজ চলছে৷ তেইশের নির্বাচনে সরকার প্রতিষ্ঠা করে কার্যকর্তারা ঘরে ফিরবে৷ বিশালগড় মন্ডল সভাপতি সুশান্ত দেব ভাষণে বলেন  ২৩ শের নির্বাচনে বিশালগড়ে নয়া ইতিহাস তৈরি হবে৷ কার্যকর্তারা প্রস্তুত রয়েছে৷ দশ হাজার  ভোটের ব্যবধানে বিজেপির প্রার্থী জয়লাভ করবে৷



Source link