‘জন্মের তারিখের প্রমাণ হিসেবে বিবেচিত হয় না আধার’, পর্যবেক্ষণ হাই কোর্টের – Sarkari Jagat

By | November 20, 2022


১/৮: একজন নাবালিকাকে অপহরণ করে তাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে এক বিবাহিত ব্যক্তির বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত তার বয়স ১৬ বছর বলে দাবি করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আধার কার্ড (Aadhaar Card) দ্বারা বয়স নির্ণয় করা নিয়ে আদালত গুরুত্বপূর্ণ পর্যবেক্ষণ করে।

২/৮: জুভেনাইল জাস্টিস অর্থাৎ শিশু সুরক্ষা আইন ২০১৫-র অধীনে কোনো ব্যক্তির জন্ম তারিখের প্রমাণের নথি হিসাবে আধার কার্ডকে বিবেচনা করা হয় না। কেরল হাইকোর্টও এবার এমন পর্যবেক্ষণই করল।

৩/৮: এই মামলায় অভিযুক্তের আসল বয়স নিয়ে ছিল বিবাদ। যে বয়সের উল্লেখ স্কুল সার্টিফিকেটে করা থাকবে সেই বয়সকেই চূড়ান্ত হিসেবে বিবেচনা করা হবে বলে জানান কেরল হাইকোর্টের বিচারপতি বেচু কুরিয়ান। বিচারপতির বক্তব্য অনুযায়ী, যদি কোনো ব্যক্তির স্কুল সার্টিফিকেট না থাকে, তাহলে সেই ব্যক্তির বয়সের প্রমাণ পত্র হিসেবে পৌরসভা অথবা পঞ্চায়েত কর্তৃক প্রাপ্ত জন্ম সার্টিফিকেটকেও গণ্য করা হবে।

আরও পড়ুন: 👇👇👇 

🔥 Aadhaar Card: ৪ ধরনের আধার কার্ড রয়েছে দেশে, কোন কার্ডে কী সুবিধা পাবেন?

🔥 এদের স্মার্টফোন ব‍্যবহারে নিষেধাজ্ঞা! ধরা পড়লেই শাস্তি, নতুন নির্দেশে মাথায় হাত gamer-দের।

🔥 WB SSC নিয়ে Breaking News সামনে এলো! কি সিদ্ধান্ত নিলো SSC?

🔥 WB JOB Recruitment 2022: দুয়ারে সরকার থেকেই বাংলার ঘরে ঘরে হবে চাকরি, বিরাট বড় ঘোষনা!

৪/৮: একজন নাবালিকাকে অপহরণ করে তাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে অসমের এক বিবাহিত ব্যক্তির বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত তার বয়স ১৬ বছর বলে দাবি করেন। সেই কারণে তাকে নাবালক হিসেবে বিবেচনা করেই যেনো এই মামলার বিচার করা হয়, এমনটাই দাবি অভিযুক্তের। সে নিজের জামিনের জন্যও আবেদন করেছে।

৫/৮: অভিযুক্তের আইনজীবীর দাবি, আধার কার্ড অনুযায়ী তার মক্কেলের জন্ম তারিখ ২০০৬ সালের ২ জানুয়ারি। কিন্তু স্কুল সার্টিফিকেট অনুযায়ী অভিযুক্তের জন্ম তারিখ রয়েছে ২০০৩ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি। এই পরিস্থিতিতে স্কুল সার্টিফিকেটের জন্ম তারিখকেই গুরুত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় আদালত।

৬/৮: বিচারপতি বলেন যে, ‘যদি স্কুলের শংসাপত্র বা ম্যাট্রিকুলেশন বা সমমানের সার্টিফিকেট থাকে এবং তাতে জন্ম তারিখ উল্লেখ করা হয়ে থাকে। তবে জুভেনাইল জাস্টিস (শিশু সুরক্ষা) আইন, ২০১৫-র ৯৪(২) ধারা অনুযায়ী শুধুমাত্র উল্লিখিত নথিই অভিযুক্তের বয়সের প্রমাণ হিসাবে গ্রহণযোগ্য।’

৭/৮: জুভেনাইল জাস্টিস অর্থাৎ শিশু সুরক্ষা আইন ২০০৭-এর ১২(৩) নং ধারা অনুযায়ী, যদি কোনো নির্যাতিতার স্কুল সার্টিফিকেট অথবা জন্ম শংসাপত্র না থাকে, সেই ক্ষেত্রে নির্যাতিতার বয়স নিয়ে চিকিৎসকের মতামত নেওয়া হবে, কর্ণাটক হাইকোর্ট পূর্বে একটি মামলার পরিপ্রেক্ষিতে এমনটাই পর্যবেক্ষণ করেছিল। এবার কেরল হাইকোর্ট সেই পর্যবেক্ষণের সাথে সামঞ্জস্য রেখে গুরুত্বপূর্ণ পর্যবেক্ষণ করল অভিযুক্তের বয়স নির্ধারণ করা নিয়ে।

৮/৮: নিবন্ধটি ভাল লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। এছাড়াও বিভিন্ন চাকরি, সরকারি প্রকল্প, শিক্ষা সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য সবার আগে জানার জন্য আমাদের Sarkari Jagat-এর ওয়েবসাইটে নিয়মিত প্রবেশ করুন এবং আমাদের WhatsApp গ্রুপে যুক্ত হন, সেখানে নিয়মিত আপডেট দেওয়া হয়।উপরোক্ত লিঙ্কে ক্লিক করেই যুক্ত হতে পারেন এছাড়াও যুক্ত হওয়ার লিঙ্ক নিবন্ধের শেষে দেওয়া হয়েছে।👇👇👇

Important Links (গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্কসমুহ) 

 🔥 আরও চাকরি, প্রকল্প ও লেটেস্ট আপডেট দেখুন 👇👇👇

🔥 SBI Scholarship 2022

🔥 লিখিত পরীক্ষা ছাড়াই সরাসরি ইন্টারভিউ দিয়েই রাজ্য সরকারের অধীনে চাকরির সুযোগ (Apply Now!)

🔥 Primary TET Breaking News! শিক্ষক নিয়োগ সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ এই বিজ্ঞপ্তি পর্ষদের! দেখুন কি নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।



Source link

Category: JOB