গণতন্ত্রকে সুুদৃঢ় করতে সাংবাদিকদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে : তথ্য ও সংস্কৃতিমন্ত্রী

By | January 17, 2023


নিজস্ব প্রতিনিধি, আগরতলা, ১৭ জানুয়ারী৷৷  রাজ্যে কর্মরত সরকারি স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সাংবাদিকদের জন্য বর্তমান সরকার স্বাস্থ্য বীমা চালু করেছে৷ স্বাস্থ্য বীমায় বছরে তিন লক্ষ টাকা পর্যন্ত চিকিৎসা পরিষেবার সুুযোগ থাকবে৷ বেশী সংখ্যক সাংবাদিকদের এই স্বাস্থ্য বীমার আওতায় আনার লক্ষ্যেই রাজ্য সরকার সাংবাদিকদের অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড প্রদানের উদ্যোগ নিয়েছে৷ আজ সচিবালয়ের প্রেস কনফারেন্স হলে তথ্য ও সংস্ক’তি দপ্তর আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে রাজ্যের সংবাদমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকদের মধ্যে অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড বিতরণ করে একথা বলেন তথ্য ও সংস্কৃতিমন্ত্রী সুুশান্ত চৌধুরী৷ অনুষ্ঠানে প্রিন্ট মিডিয়ার ১১ জন এবং বৈদ্যুতিন প্রচার মাধ্যমের ১৩ জন সাংবাদিকের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড তুলে দেওয়া হয়৷
অনুষ্ঠানে তথ্য ও সংস্ক’তিমন্ত্রী বলেন, রাজ্যের সাংবাদিকদের অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড পাওয়ার দীর্ঘদিনের দাবি পূরণে রাজ্যের তথ্য ও সংস্ক’তি দপ্তর আন্তরিক৷ পুরানো ও নতুন সহ মোট ৩৩৭ জন অ্যাক্রিডিটেটেড সাংবাদিকদেরকে স্বাস্থ্য বীমার আওতায় আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে৷ এরফলে ভারতবর্ষের বিভিন্ন নামিদামী হাসপাতালগুলিতে চিকিৎসা পরিষেবার সুুযোগ নিতে পারবেন সাংবাদিকরা৷ তিনি জানান, ১৮৯ জন নতুন সাংবাদিককে অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড প্রদান করা হয়েছে৷ তাছাড়া ১৪১ জন সাংবাদিকের রিনুয়েল অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড এবং ২৫ জন প্রবীণ সাংবাদিককে অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড দেওয়া হয়েছে৷ তিনি জানান, বর্তমানে অ্যাক্রিডিটেশন কার্ডের তালিকায় যাদের নাম বাদ গেছে আগামীদিনেও তাদের পাওয়ার সুুযোগ রয়েছে৷ তিনি বলেন, এই অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড প্রদানের প্রক্রিয়া চালু থাকবে৷ যেসকল সাংবাদিকরা এই অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড পেয়েছেন সেই কার্ডের যথাযথ মর্যাদা রক্ষা করার পাশাপাশি সঠিক ব্যবহারের উপরও তথ্য ও সংস্ক’তিমন্ত্রী গুরুত্ব আরোপ করেন৷ গণতন্ত্রকে সুুদৃঢ় করতে সাংবাদিকদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে৷ গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে সাংবাদিকরা তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালনের মধ্য দিয়ে রাজ্যকে আরও শক্তিশালী করে তুলতে সদর্থক ভূমিকা নেবেন বলে তথ্য ও সংস্কৃতিমন্ত্রী শ্রীচৌধুরী আশাব্যক্ত করেন৷
অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য বীমা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরে তথ্য ও সংস্ক’তিমন্ত্রী জানান, ২১ থেকে ৩৫ বছর পর্যন্ত বয়সী সাংবাদিকদের বছরে স্বাস্থ্য বীমার প্রিমিয়ামের পরিমাণ জিএসটি ছাড়া ৫ হাজার ৫৯৫ টাকা৷ এরমধ্যে রাজ্য সরকার বহন করবে ৪ হাজার ৪৭৬ টাকা এবং সাংবাদিকদের প্রদান করতে হবে ১ হাজার ১১৯ টাকা৷
৩৫ থেকে ৪৫ বছর বয়সী সাংবাদিকদের বছরে বীমার প্রিমিয়ামের পরিমাণ জিএসটি ছাড়া ৭ হাজার ৯৪৭ টাকা৷ তাতে রাজ্য সরকারের ৬ হাজার ৩৫৮ টাকা এবং সাংবাদিকদের প্রদেয় অর্থ ১ হাজার ৫৮৯ টাকা৷ ৪৫ থেকে ৫৫ বছর বয়সী সাংবাদিকদের বছরে বীমার প্রিমিয়াম জিএসটি ছাড়া ১৩ হাজার ৬৭২ টাকা৷ রাজ্য সরকার বহন করবে ১০ হাজার ৯৩৮ টাকা এবং সাংবাদিকদের প্রদান করতে হবে ২ হাজার ৭৩৪ টাকা৷ ৫৫ থেকে ৬৫ বছর বয়স পর্যন্ত সাংবাদিকদের ক্ষেত্রে বীমার প্রিমিয়ামের পরিমান জিএসটি ছাড়া ১৭ হাজার ৯০৭ টাকা৷ এরমধ্যে ১৪ হাজার ৩২৬ টাকা রাজ্য সরকারের এবং বাকী ৩ হাজার ৫৮১ টাকা বীমাকারীদের প্রদান করতে হবে৷ এই স্বাস্থ্য বীমা প্রতি বছর নবীকরণের জন্য সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তথ্য ও সংস্কৃতিমন্ত্রী ৷
সাংবাদিক সম্মেলনে তথ্য ও সংস্ক’তি দপ্তরের সচিব ড. পি কে চক্রবর্তী বলেন, সাংবাদিকদের স্বাস্থ্য বীমা প্রকল্প রাজ্য সরকারের একটি বড় পদক্ষেপ৷ এই প্রকল্পে সাংবাদিকগণ চিকিৎসা পরিষেবার সুুযোগ পাবেন৷ ন্যাশনাল ইন্স্যরেন্স কোম্পানী বীমার দায়িত্বে রয়েছে৷ তথ্য ও সংস্ক’তি দপ্তরের অধিকর্তা রতন বিশ্বাস বলেন, স্বাস্থ্য বীমা সম্পর্ণ ক্যাসলেস একটি ব্যবস্থা৷ যারা এখনো অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড নবীকরণ করানোর জন্য আবেদন করেননি তারা যেন তথ্য ও সংস্ক’তি দপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ করেন৷



Source link