কৃষকরা হচ্ছেন আমাদের অন্নদাতা : তথ্য ও সংসৃকতি মন্ত্রী

By | December 3, 2022


নিজস্ব প্রতিনিধি, আগরতলা, ৩ ডিসেম্বর৷৷ কৃষকরা হচ্ছেন আমাদের অন্নদাতা৷ কৃষকদের আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মসূচি রূপায়ণ করছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার৷ গতকাল মন্ত্রিসভার বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ডিসেম্বর মাসেই রাজ্যের কৃষকদের কাছ থেকে নূ্যনতম সহায়ক মূল্যে ৩৫ হাজার মেট্রিক টন ধান কেনা হবে৷ তাতে ব্যয় হবে ৮৭ কোটি ৩ লক্ষ টাকা৷ আজ অমরপুর নতুন টাউনহলে লাভার্থী সম্মেলনের উদ্বোধন করে তথ্য ও সংসৃকতি মন্ত্রী সুুশান্ত চৌধুরী একথা বলেন৷ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক রঞ্জিত দাস, অমরপুর পঞ্চায়েত সমিতির চেয়ারম্যান শঙ্করানন্দ সাহা, বিএসি’র চেয়ারম্যান বীরবাহাদুর জমাতিয়া, পানীয় জল ও স্বাস্থ্যবিধান দপ্তরের মুখ্য বাস্তুকার শ্যামলাল ভৌমিক প্রমুখ৷ সভাপতিত্ব করেন অমরপুর নগরপঞ্চয়েতের চেয়ারপার্সন বিকাশ সাহা৷
লাভার্থী সম্মেলনের উদ্বোধন করে তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রী বলেন, প্রতি কেজি ২০ টাকা ৪০ পয়সা দামে যে ধান কেনা হচ্ছে সেই টাকা সরাসরি কৃষকদের অ্যাকাউন্টে দেওয়া হচ্ছে৷ পিএম-কিষাণ প্রকল্পে কৃষকগণ বছরে ৩ কিস্তিতে ৬ হাজার টাকা করে পাচ্ছেন৷ বর্তমান সরকার বিভিন্ন সামাজিক ভাতা ২ হাজার টাকা করেছে৷ আরও ৩০ হাজার গরীব অংশের মানুষকে সামাজিক ভাতা দেওয়া হবে৷ ঘরে ঘরে পরিশ্রত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার কাজ চলছে৷ প্রতিটি বাড়িতে বিদ্যৎ সংযোগ দেওয়ার কাজও চলছে৷ তিনি বলেন, রাজ্য সরকার চাইছে প্রতিটি মানুষ স্বাবলম্বী এবং আত্মনির্ভর হয়ে উঠুক৷
অনুষ্ঠানে ১১ জন ক’ষকের হাতে বিনামূল্যে উইডার মেশিন, পেডি থেচার তুলেদেন তথ্য ও সংস্ক’তি মন্ত্রী৷ লাভার্থী সম্মেলন উপলক্ষে বিভিন্ন দপ্তরের ১৮টি প্রদর্শনী স্টল খোলা হয়৷ এই অনুষ্ঠানের আগে পানীয় জল ও স্বাস্থ্যবিধান দপ্তরের মন্ত্রী অমরপুরে দপ্তরের বিভাগীয় কার্যনির্বাহী বাস্তুকারের কার্যালয়ের দ্বারোদঘাটন করেন৷



Source link