ইপিএফে সুদ কমানোর প্রস্তাবে সায় কেন্দ্রের, চার দশকে সর্বনিম্ন হল সুদের হার

By | June 3, 2022


Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 3, 2022 8:00 pm|    Updated: June 3, 2022 8:00 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ট্রাস্টিজের প্রস্তাবে সায় কেন্দ্রের। রেকর্ড হারে কমে গেল এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ডের সুদের হার। এতদিন EPF-এ গচ্ছিত টাকায় সুদ মিলত ৮.৫ শতাংশ। এবার সেই সুদের হার কমে দাঁড়াল মাত্র ৮.১ শতাংশ। যা কিনা গত চার দশকে সর্বনিম্ন।

গত মার্চ মাসেই সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ট্রাস্টিজের বৈঠকে ২০২১-২২ অর্থবর্ষের জন্য ইপিএফে সুদের হার প্রস্তাব করা হয় ৮.১ শতাংশ। শুক্রবার অর্থমন্ত্রক সেই প্রস্তাবে ছাড়পত্র দিয়েছে। এবার এই নতুন সুদের হারেই কর্মীদের অ্যাকাউন্টে টাকা জমা পড়বে। এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ডে দেশের প্রায় ৬ কোটি চাকুরিজীবী অর্থ গচ্ছিত রাখেন। সুদের হার কমায় তাঁদের সঞ্চয়ের পরিমাণ অনেকটাই কমবে। পরিসংখ্যান বলছে, এর আগে ১৯৭৭-১৯৭৮ সালে সবচেয়ে কম ছিল ইপিএফও-র সুদের হার (Interest Rate)। সেই সময় সুদের হার দাঁড়িয়েছিল ৮ শতাংশ। তার পর থেকে কখনই এত কম হারে সুদ পাননি চাকুরিজীবীরা।

[আরও পড়ুন: বাড়ছে করোনা। বিমানবন্দরগুলিতে ফের মাস্ক পরা নিয়ে কড়াকড়ির নির্দেশ দিল্লি হাই কোর্টের]

এ প্রসঙ্গে বলে রাখা ভাল, ২০১৪ সালে কেন্দ্রে মোদি (Narendra Modi) সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই নিম্নমুখী হয়েছে ইপিএফও-র সুদের হার। ২০১৩-২০১৪, ২০১৪-২০১৫ সালে ইপিএফওর সুদের হার ছিল ৮.৭৫ শতাংশ। ২০১৫-১৬ অর্থবর্ষে এই হার বেড়ে দাঁড়ায় ৮.৮০ শতাংশ। সেটাই শেষবার। তারপর আর ৮.৬৫ শতাংশের উপর ওঠেনি ইপিএপের সুদের হার। করোনা পরিস্থিতিতে সেটি কমিয়ে করা হয় সাড়ে ৮ শতাংশ। এবার সেই সুদের হার আরও কমল।

[আরও পড়ুন: By-Election Results: উত্তরাখণ্ডে মুখ্যমন্ত্রী ধামির মসনদের কাঁটা সরল, কেরলে ধাক্কা বামেদের]

বস্তুত, মূল্যবৃদ্ধির বাজারে এমনিতেই ল্যাজেগোবরে অবস্থা মধ্যবিত্তর। হেঁসেলে আগুন জ্বলছে জ্বালানির দামেই। কিছুদিন আগে রিজার্ভ ব্যাংক রেপো রেট বাড়িয়েছে। যার ফলে অনেক ব্যাংকই বাড়ি এবং গাড়ির সুদে EMI বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেটাও মধ্যবিত্তর পকেট কেটেছে। তার উপর অবসর জীবনের সঞ্চয়েও কোপ পড়ল। এবার মধ্যবিত্ত যাবে কোথায়? প্রশ্ন তো উঠছেই।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ

নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে





Source link