আচমকা বন্ধ সুইগি-জোম্যাটো, চরম সমস্যায় গ্রাহকরা, নেট দুনিয়ায় মিমের বন্যা

By | April 6, 2022


সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাত্র আধ ঘণ্টার বিভ্রাট, তাতেই সুইগি (Swiggy) আর জোম্যাটোকে (Zomato) নিয়ে মিমের বন্যা বইল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ডোনাল্ড ডাকের কার্টুন ব্যবহার করে তার মুখে এক নেটিজেন বসিয়েছে উক্তি, “আমার বাবা কোনও সমস্যা নেই। আমি তো মায়ের হাতের খাবার খেয়ে খুশি!” আসল কথা সুইগি আর জোম্যাটোর অ্যাপে গোলোযোগে একটা বিষয় স্পষ্ট হয়েছে, তা হল দেশের একটা বিরাট অংশের মানুষ এখন এই অনলাইন ফুড ডেলিভারির উপরেই নির্ভরশীল।

বুধবার ঠিক মধ্যাহ্নভোজের সময়েই হয় গোলমাল। দুপুরে অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসে ত্রুটি ঘটায় জোম্যাটো, সুইগি ফুড ডেলিভারি অ্যাপে বেশ কিছুক্ষণের জন্য পরিষেবা বন্ধ হয়ে যায়। এর ফলে খাবার অর্ডার দিতে গিয়ে অস্বস্তিতে পড়েন গ্রাহকেরা, কিছুতেই অর্ডার দিতে পারছিলেন না, তেমনই গন্তব্যস্থলে খাবার পৌঁছে দিতেও ঝামেলায় পড়ে ডেলভারি বয়রা। যদিও আধঘণ্টার মধ্যেই অ্যাপের প্রাথমিক ত্রুটি সারিয়ে ফেলে দুই সংস্থা। এই নিয়ে তারা দুঃখপ্রকাশও করে।

[আরও পড়ুন: ‘হিন্দু পুরাণেও ধর্ষণের উল্লেখ আছে’, বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে সাসপেন্ড আলিগড় বিশ্ববিদ্যালের অধ্যাপক]

জোম্যাটো ও সুইগি, দুই অ্যাপের গ্রাহক পরিষেবা বিভাগ জানায়, “আমরা এই অস্থায়ী ত্রুটির দ্রুত সমাধানের চেষ্টা করছিলাম। আপনাদের অসুবিধার জন্য ক্ষমাপ্রার্থী।” কিন্তু ততক্ষণে দেরি হয়ে গেছে, অ্যাপের যান্ত্রিক ত্রুটি নিয়ে ততক্ষণে সরব হয়েছে জনতা। নেটমাধ্যমে ক্ষোভপ্রকাশের পাশাপাশি মিমের বন্যা বয়ে গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলায় গেলে খুন হয়ে যেতে পারেন’, রাজ্যসভায় বিস্ফোরক অমিত শাহ, তীব্র প্রতিবাদ তৃণমূলের]

অনেকেই গোলোযোগের সময় অ্যাপে খাবার অর্ডার দিলে যে মেসেজ ভেসে উঠছিল তার স্ক্রিনশট পোস্ট করে অভিযোগ করেন। এইসঙ্গে শুরু হয় রঙ্গব্যঙ্গ। লিওনার্দো দি ক্যাপ্রিওর একটি ছবি পোস্ট করেন এক নেটিজেন। যেখানে হাতে ওয়াইনের গ্লাস কিন্তু মুখ বিকৃত টাইট্যানিকের নায়কের। ক্যাপশানে লেখা “পাশের রেস্তরাঁয়”। অ্যাপ বিভ্রাটে ডেলিভারি বয়রা কাস্টোমারদের নোংরা কথা শুনছেন, তা নিয়েও একাধিক মিম দেখা গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। একটি পুরনো স্কুটারে সুইগি আর জোম্যাটের দুই ডেলিভ্যারি বয় একসঙ্গে, এমন ছবি পোস্ট করেছেন এক নেটিজেন। একটি মিম দেখে যাচ্ছে এক ভদ্রলোক কাউকে ফোন করে জানাচ্ছেন, কালো চায়ে বিস্কুট ডুবিয়ে খেতে হচ্ছে, কারণ সুইগি ও জোম্যাটোতে খাবার অর্ডার করা যাচ্ছে না। দিনের শেষে অবশ্য সব সমস্যা মিটে যায়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ

নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে





Source link